অস্বচ্ছতার অভিযোগে ৩২৪ মিলিয়ন ইউ এস ডলারের কোভ্যাকসিন চুক্তি বাতিল করলো ব্রাজিল
ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জেয়ার বোলসোনারোফাইল ছবি, দ্য স্ক্রলের সৌজন্যে

অস্বচ্ছতার অভিযোগে ৩২৪ মিলিয়ন ইউ এস ডলারের কোভ্যাকসিন চুক্তি বাতিল করলো ব্রাজিল

৩২৪ মিলিয়ন US ডলারের ভ্যাকসিন চুক্তি বাতিল করলো ব্রাজিল। চুক্তি ঘিরে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠায় চুক্তি বাতিল করা হয়েছে। এই পরিমাণ অর্থের বিনিময়ে ভারত বায়োটেকের কোভ্যাকসিন কেনার কথা ছিলো ব্রাজিলের।

৩২৪ মিলিয়ন ইউএস ডলারের ভ্যাকসিন চুক্তি বাতিল করলো ব্রাজিল। চুক্তি ঘিরে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠায় এই চুক্তি বাতিল করা হয়েছে। চুক্তি অনুসারে এই পরিমাণ অর্থের বিনিময়ে ভারতীয় সংস্থা ভারত বায়োটেকের কোভ্যাকসিন কেনার কথা ছিলো ব্রাজিলের। যদিও এই চুক্তি ঘিরে অস্বচ্ছতার অভিযোগ ওঠে প্রেসিডেন্ট জেয়ার বোলসোনারোর বিরুদ্ধে।

একাধিক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ অনুসারে , ব্রাজিলের স্বাস্থ্য মন্ত্রকের এক প্রাক্তন কর্মী আগেই আদালতের কাছে জানিয়েছিলেন, প্রেসিডেন্ট জেয়ার বোলসোনারো তাঁকে ওই চুক্তিতে স্বাক্ষর করার জন্য চাপ দিয়েছিলেন। তাঁর আরও অভিযোগ, ওই চুক্তিতে ভ্যাকসিনের দাম ১০০০ গুণ বাড়িয়ে দেখানো হয়েছিলো।

ব্রাজিলের স্বাস্থ্য মন্ত্রকের এক আধিকারিকের বক্তব্য অনুসারে, ভারতীয় সংস্থা ভারত বায়োটেক-এর কোভ্যাকসিন আমদানি করার জন্য চাপ সৃষ্টি করা হয়েছিলো এবং সেই চুক্তিতে অস্বচ্ছতা ছিলো। এই ভ্যাকসিন কেনার জন্য সিঙ্গাপুরের এক সংস্থাকে ৪৫ মিলিয়ন ইউ এস ডলার অগ্রিম দেওয়া হয়। যদিও প্রেসিডেন্ট জেয়ার বোলসোনারো এই বিষয়টি সম্পর্কে কিছুই জানেন না বলে দাবি করেছেন।

ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী এক সাংবাদিক সম্মেলনে দাবি করেছেন – তিনি এবং তাঁর টিম এই বিষয়ে তদন্ত করেছেন এবং ওই চুক্তিতে কোনো অস্বচ্ছতা পাওয়া যায়নি। যদিও স্বচ্ছতা বজায় রাখতে এই চুক্তি বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পরেই বিরোধীরা প্রসিডেন্ট বোলসোনারোর ইমপিচমেন্টের দাবীতে সরব হয়েছেন। ইতিমধ্যেই দেশের সুপ্রিম কোর্টে প্রেসিডেন্ট জেয়ার বোলসোনারোর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। বিরোধীদের দাবি, আদালত এই বিষয়ে তদন্ত করে প্রকৃত সত্য সামনে আনুক। তাঁদের আরও দাবি, বোলসোনারো সবকিছু জানার পরেও কেন এই বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি তাও তদন্ত করে দেখা হোক।

উল্লেখ্য, গত ফেব্রুয়ারিতে ব্রাজিলের স্বাস্থ্য মন্ত্রক ভারতীয় সংস্থা ভারত বায়োটেকের সঙ্গে ২০ মিলিয়ন কোভ্যাকসিন ডোজের জন্য চুক্তি করে। জানা গেছে, এই চুক্তিমূল্য ছিলো ৩২৪ মিলিয়ন ইউ এস ডলারের। প্রতি ডোজ ভ্যাকসিনের দাম পড়ছিলো ১৫ ইউএস ডলার। যা ব্রাজিল যত ভ্যাকসিন কিনেছে তার মধ্যে সবথেকে বেশি দামের। যদিও এখনও পর্যন্ত এই চুক্তির জন্য কোনো টাকা ব্রাজিল সরকার দেয়নি।

ভারত বায়োটেকের পক্ষ থেকেও ই-মেল করা এক বিবৃতিতে ভ্যাকসিন চুক্তিতে কোনো অস্বচ্ছতার কথা অস্বীকার করা হয়েছে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in