Afghanistan: সপ্তাহে ২০০ ডলারের বেশি ব্যাঙ্ক থেকে তোলা যাবেনা - জারি তালিবানি ফতোয়া

রবিবার আফগানিস্তানের এক সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, তালিবানিদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, কোনো ব্যক্তি সপ্তাহে ২০০ ইউ এস ডলার মূল্যের বেশি টাকা ব্যাঙ্ক থেকে তুলতে পারবেন না।
Afghanistan: সপ্তাহে ২০০ ডলারের বেশি ব্যাঙ্ক থেকে তোলা যাবেনা - জারি তালিবানি ফতোয়া
সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক অফ আফগানিস্তানফাইল ছবি সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক অফ আফগানিস্তান-এর সৌজন্যে

কাবুলে দখলদারির এখনও পনেরো দিন পূর্ণ হয়নি। এরমধ্যেই ফতোয়া জারি শুরু হয়ে গেছে তালিবানি বাহিনীর। রবিবার আফগানিস্তানের এক সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, দেশের নাগরিকদের ব্যাঙ্ক থেকে টাকা তোলায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে তালিবানিরা। তালিবানিদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, কোনো ব্যক্তি সপ্তাহে ২০০ ইউ এস ডলার মূল্যের বেশি টাকা ব্যাঙ্ক থেকে তুলতে পারবেন না।

সংবাদ মাধ্যম খাম্মা তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে তালিবানিদের পক্ষ থেকে ঘোষিত এক বিবৃতি অনুসারে, সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক অফ আফগানিস্তান-ডে আফগানিস্তান ব্যাঙ্ক এবং দেশের সমস্ত প্রাইভেট এবং আন্তর্জাতিক ব্যাঙ্ককে জানানো হয়েছে কোনো ব্যক্তি সপ্তাহে ২০০ ইউ এস ডলার অথবা ২০০০ এএফএস-এর বেশি ব্যাঙ্ক থেকে তুলতে পারবেন না।

যদিও তালিবানিদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে এই নিষেধাজ্ঞা সাময়িক। দেশের বেহাল আর্থিক পরিস্থিতি সামাল দিতে এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এর আগে কাবুলের রাস্তায় হাজারে হাজারে মানুষ নেমে ব্যাঙ্ক বন্ধ থাকার প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন। সেই ঘটনার পরেই তালিবানিদের পক্ষ থেকে এই ঘোষণা করা হয়েছে।

ডে আফগানিস্তান ব্যাঙ্ক দেশের সমস্ত প্রাইভেট ব্যাঙ্ককে জানিয়েছে সেন্ট্রাল ব্যাঙ্কের আইন মেনে সমস্ত কাজ পরিচালনা করতে হবে। তালিবানিদের নির্দেশিকায় আরও জানানো হয়েছে, ব্যবসায়ী এবং সাধারণ নাগরিকরা নেটমাধ্যমে লেনদেন করতে পারবেন।

গত ১৫ আগস্ট তালিবানিরা কাবুলের দখল নেবার পর থেকেই সে দেশের ব্যাঙ্কিং ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভেঙে পড়েছে। সমস্ত ব্যাঙ্কই বন্ধ আছে বলে জানিয়েছে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম। যার ফলে দেশের সাধারণ মানুষ সমস্যায় পড়েছেন। বিভিন্ন সংস্থার মালিকরা নগদ টাকার অভাবে কর্মচারীদের বেতন দিতে পারেননি। যে সমস্যা গত ১৫ দিনে মেটেনি বলে সাধারণ মানুষের অভিযোগ।

- with inputs from IANS

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in