Bangladesh: ফ্রুট জুসের কারখানায় বিধ্বংসী আগুন, মৃত কমপক্ষে ৫২, আহত বহু

কারখানার ভেতর থেকে এখনও পর্যন্ত ৫২টি মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ৫০ জনেরও বেশি ব‍্যক্তি আগুনের কারণে আহত হয়েছেন।
Bangladesh: ফ্রুট জুসের কারখানায় বিধ্বংসী আগুন, মৃত কমপক্ষে ৫২, আহত বহু
জ্বলছে আগুনছবি সৌজন্যে - প্রথম আলো

বাংলাদেশে একটি ফলের‌ রস তৈরির কারখানায় ভয়াবহ আগুন লেগে মৃত্যু হলো কমপক্ষে ৫২ জনের। ৫০ জনের বেশি ব‍্যক্তি আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে অনেকের অবস্থাই আশঙ্কাজনক। মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

শুক্রবার বাংলাদেশের গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টা নাগাদ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে সেজান ফ্রুট জুসের কারখানায় আগুন লাগে। তৎক্ষণাৎ ঘটনাস্থলে দমকলের ১৮টি ইঞ্জিন এসে পৌঁছায়। ছ'তলা কারখানার পুরোটাতেই আগুন ছড়িয়ে যাওয়ায় তা নিয়ন্ত্রণে আনতে বেশ বেগ পেতে হয়েছে দমকল কর্মীদের।

দমকল কর্মীদের অনুমান, নীচের তলাতেই প্রথমে আগুন লেগেছিল। রাসায়নিক পদার্থ, প্লাস্টিক বোতল এবং অন্যান্য দাহ‍্য বস্তু মজুত থাকার কারণে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। তবে কিভাবে আগুন লেগেছে তা এখনও পরিষ্কার নয়।

ঢাকা ট্রিবিউন জানিয়েছে, কারখানার ভেতর থেকে এখনও পর্যন্ত ৫২টি মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ৫০ জনেরও বেশি ব‍্যক্তি আগুনের কারণে আহত হয়েছেন। অনেকেই বিধ্বংসী আগুন থেকে বাঁচতে উপর থেকে ঝাঁপ দিয়েছে বলে জানিয়েছে সংবাদ সংস্থাটি। আহত-নিহতরা প্রত‍্যেকেই কারখানার কর্মী।

শুক্রবার দুপুরে সংবাদমাধ্যমটির তরফ থেকে প্রকাশিত একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, কারখানার বাইরে এখনও প্রচুর লোক দাঁড়িয়ে রয়েছেন তাঁদের প্রিয়জনদের সন্ধানে। অনেক নিখোঁজ ব‍্যক্তির মধ্যে ৪৪ জন নিখোঁজ কর্মীর পরিচয় নিশ্চিত করা হয়েছে।

প্রথম আলো জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে কমপক্ষে ১৮ জনের বয়স ১৮-এর নীচে।

নিহতদের মৃতদেহ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এই ঘটনার তদন্তের জন্য পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে প্রশাসন।

এর আগে ২০১৯ সালে পুরনো ঢাকায় ৪০০ বছরের পুরনো একটি অ‍্যাপার্টমেন্টের দোকান ও গুদামে আগুন লেগে কমপক্ষে ৬৭ জনের মৃত্যু হয়েছিল। ওই বছরই একটি বহুজাতিক বাণিজ্যিক ভবনে আগুন লেগে কমপক্ষে ২৫ জনের মৃত্যু হয়।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in