আপোষহীন সাংবাদিক, মুক্তিযোদ্ধা, কামাল লোহানী প্রয়াত

আপোষহীন সাংবাদিক, মুক্তিযোদ্ধা, কামাল লোহানী প্রয়াত
কামাল লোহানীফাইল ছবি সংগৃহীত

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন বাংলাদেশের বিখ্যাত সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব তথা এক আপোষহীন সাংবাদিক কামাল লোহানী। ঢাকার মহাখালীর এক হাসপাতালে আজ সকাল ১০টা নাগাদ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৮৬। হাসপাতালের ডিরেক্টর সাংবাদিকের মৃত‍্যুর খবর নিশ্চিত করেন। তাঁর মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক মহলে।

দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত জনিত সমস্যায় ভুগছিলেন প্রাক্তন সাংবাদিক ও চির প্রতিবাদী এই মানুষটি। কিডনি ও ফুসফুসের সংক্রমণ ছিল তাঁর। গতকাল (শুক্রবার) শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় মহাখালীর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। হাসপাতালে ভর্তির পর জানা যায় তাঁর শরীরে কোভিড-১৯ পজিটিভ। রাতেই আইসিইউতে পাঠানো হয় তাঁকে। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বিশিষ্ট এই সাংস্কৃতিক ব‍্যক্তিত্ব।

তাঁর স্ত্রী কয়েক বছর আগে মারা যান। বর্তমানে দুই মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে তাঁর।‌ বাবার মৃত্যুর পর সোশ্যাল মিডিয়ায় ছেলে সাগর লোহানি লেখেন, "ধরে রাখতে পারলাম না। চলে গেলেন কামাল লোহানি।"

১৯৩৪ সালের‌ ২৬ জুন সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন কামাল লোহানি। দৈনিক মিল্লাত পত্রিকা দিয়ে সাংবাদিকতা শুরু করলেও আজাদ, পূর্বদেশ, সংবাদ, দৈনিক বার্তার মতো সংবাদপত্রে কাজ করেছেন তিনি। বাংলাদেশ সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতিও ছিলেন তিনি। একসময় দায়িত্বে ছিলেন বাংলাদেশ রেডিওর। ২০০৯ সাল‌ থেকে দু'বছর বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর ম‍্যানেজিং ডিরেক্টর ছিলেন। ১৯৫২ সালের‌ ভাষা আন্দোলন ও পরবর্তীকালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে তাঁর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা অবিস্মরণীয়।

তাঁর মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতি।

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in