আগে আব্বাজান বলা লোকেরাই রেশন পেত - যোগীর মন্তব্যে নেটদুনিয়ায় বিতর্ক, নিন্দায় ওমর আবদুল্লা

আদিত্যনাথ বলেন, "আজ আপনারা সবাই রেশন পাচ্ছেন। ২০১৭ সালের আগে কি এই রেশন পেতেন আপনারা? যারা 'আব্বাজান' বলে ডাকেন, তখন সব রেশন তাঁরা হজম করতেন। সেই সময় কুশিনগরের রেশম বাংলাদেশ এবং নেপালেও পৌঁছানো হতো।"
আগে আব্বাজান বলা লোকেরাই রেশন পেত - যোগীর মন্তব্যে নেটদুনিয়ায় বিতর্ক, নিন্দায় ওমর আবদুল্লা
যোগী আদিত্যনাথফাইল ছবি

যাঁরা আব্বাজান বলে, ২০১৭ সালের আগে কেবলমাত্র তাঁরাই রেশন পেত। বর্তমান সরকারের আমলে সবাই রেশন পাচ্ছে। আগের সরকারগুলির বিরুদ্ধে "বর্ণবাদী এবং তুষ্ট করার রাজনৈতিক মানসিকতার" অভিযোগ তুলে, তাদের আক্রমণ করতে গিয়ে বিতর্কিত এই মন্তব্য করেছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ‍্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।

কুশিনগরে একটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠান গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী আদিত্যনাথ বলেন, "আজ আপনারা সবাই রেশন পাচ্ছেন। ২০১৭ সালের আগে কি এই রেশন পেতেন আপনারা? যারা 'আব্বাজান' বলে ডাকেন, তখন সব রেশন তাঁরা হজম করতেন। সেই সময় কুশিনগরের রেশম বাংলাদেশ এবং নেপালেও পৌঁছানো হতো। আজ ‌যদি কেউ গরিবের রেশন কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করে, তাহলে তাঁকে জেলে যেতে হবে। আমরা এই অঙ্গীকার নিয়ে কাজ করছি।"

মুসলমান সম্প্রদায়ের লোকেরা তাঁদের বাবাকে 'আব্বা জান' বলে ডাকেন। এর আগেও একাধিকবার এই সম্প্রদায়কে আক্রমণ করে বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন গেরুয়া পোশাকধারী যোগী আদিত্যনাথ। আবার রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশের মতে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদবের তোষণনীতিকে কটাক্ষ করে এই মন্তব্য করেছেন বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী মোদীর প্রশংসা করে যোগী আরও বলেন, "প্রধানমন্ত্রী মোদী আসলে গোটা দেশের রাজনৈতিক কর্মসূচি বদলে দিয়েছেন। ১৯৪৭ সালে যে রাজনীতি শুরু হয়েছিল এবং যা বর্ণ-ধর্ম-অঞ্চল-ভাষা-পরিবারের সীমাবদ্ধ ছিল, প্রধানমন্ত্রী মোদী তা গ্রাম, দরিদ্র, কৃষক, যুবক, মহিলা, শিশুদের মধ্যে ছড়িয়ে দিয়েছেন। এর ফলে সমাজের প্রতিটি শ্রেণি উন্নয়নের সুফল পাচ্ছে। আজ কোনো তোষণনীতি নেই। আগে যখন তোষণের রাজনীতি ছিল সেখানে কোনো উন্নয়ন ছিল না‌। কেবল দাঙ্গা, দুর্নীতি, সন্ত্রাস, নৈরাজ্য, নিপীড়িন, অত‍্যাচার ছিল।"

তিনি আরও বলেন, অযোধ‍্যায় রাম জন্মভূমিতে মন্দির নির্মাণ তখনই শুরু হয়েছে যখন কেন্দ্র এবং রাজ‍্যে বিজেপি ক্ষমতায় এসেছে। সমাজবাদী পার্টি, বহুজন সমাজবাদী পার্টি বা কংগ্রেসের আমলে তা শুরু হয়নি।

যোগী আদিত্যনাথের 'আব্বাজান' মন্তব্য নিয়ে ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্ক শুরু হয়েছে। এই মন্তব্যের নিন্দা জানিয়েছেন জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ। ট‍্যুইটারে তিনি লেখেন, "আমি সবসময় বলে আসছি মুসলমানদের প্রতি ঘৃণা ছড়ানো এবং সাম্প্রদায়িকতার বিষ ছড়ানো ছাড়া অন্য কোনো এজেন্ডা নিয়ে নির্বাচনে লড়াই করার কোনো ইচ্ছা নেই বিজেপির। একজন মুখ্যমন্ত্রী যিনি পুনরায় নির্বাচনে দাঁড়াবেন, তিনি দাবি করছেন মুসলমানরা হিন্দুদের বরাদ্দ সমস্ত রেশন হজম করে নিয়েছে।"

ওমর আবদুল্লাহর ট‍্যুইটের কমেন্টে সাংবাদিক সংযুক্তা বসু লিখেছেন, "কিভাবে জানলেন উনি? উনি কী নির্দিষ্ট কোনো তথ‍্য দিয়েছেন? কোন বছর, কোন জেলা, কত রেশন? অস্পষ্ট ভিত্তিহীন বক্তৃতা যার সত‍্যতা যাচাই করা যায় না, তা নিয়ে ভাবা বোকামি। সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষ ছড়ানোর আগে উত্তরপ্রদেশের মুখ‍্যমন্ত্রীর উচিত প্রমাণ পেশ করা।"

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in