ষষ্ঠ দফার নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের কিছু প্রার্থী
ষষ্ঠ দফার নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের কিছু প্রার্থী গ্রাফিক্স আকাশ

Lok Sabha Polls 24: পশ্চিমবঙ্গের ৮ কেন্দ্রে ৭৯ প্রার্থী, ষষ্ঠ দফায় রাজ্যে বাহিনী বৃদ্ধি ৫৬ শতাংশ

People's Reporter: রাজ্যে ষষ্ঠ দফার নির্বাচনে মোট ১০২০ কোম্পানি সিএপিএফ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। যা পঞ্চম দফার তুলনায় ৫৬ শতাংশ বেশি। পঞ্চম দফায় বাহিনী ছিল ৬৫০ কোম্পানি।

রাত পোহালেই পশ্চিমবঙ্গ সহ দেশে ষষ্ঠ দফার নির্বাচন। অষ্টাদশ লোকসভা নির্বাচনে আগামীকাল ২৫মে-র ভোটের পর বাকি থাকবে আর মাত্র একটি পর্ব। ১জুন। ভোটের ফলাফল ঘোষিত হবে ৪ জুন।

লোকসভা নির্বাচনের ষষ্ঠ দফায় রাজ্যের ৮টি আসনে ভোটগ্রহণ করা হবে। যে ৮ আসনে মোট প্রার্থী সংখ্যা ৭৯। যার মধ্যে সর্বাধিক প্রার্থী আছে বাঁকুড়া ও ঝাড়গ্রাম কেন্দ্রে। এই দুই কেন্দ্রেই প্রার্থী সংখ্যা ১৩। পুরুলিয়া কেন্দ্রে প্রার্থী সংখ্যা ১২। মেদিনীপুর, কাঁথি, তমলুক কেন্দ্রের প্রার্থী সংখ্যা ৯ করে। ঘাটাল এবং বিষ্ণুপুর কেন্দ্রের প্রার্থীর সংখ্যা ৭ জন করে।

রাজ্যে ষষ্ঠ দফার নির্বাচনে একাধিক হেভিওয়েট প্রার্থী লড়াইয়ের ময়দানে আছেন। যাদের মধ্যে আছেন বিজেপির অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় (তমলুক), অগ্নিমিত্রা পাল (মেদিনীপুর), হিরণ চ্যাটার্জি (ঘাটাল)। তৃণমূলের পক্ষে এই পর্বে লড়াইয়ের ময়দানে আছেন দেব অধিকারী (ঘাটাল), জুন মালিয়া (মেদিনীপুর)। এই পর্বেই তমলুক কেন্দ্র থেকে সিপিআইএম প্রার্থী হিসেবে লড়াইয়ের ময়দানে আছেন আইনজীবী সায়ন বন্দ্যোপাধ্যায় এবং ঝাড়গ্রাম কেন্দ্রে সোনামণি মুরমু টুডু। যারা দুজনেই এই প্রথমবার লোকসভায় প্রার্থী হয়েও প্রচার পর্বে যথেষ্ট সাড়া জাগিয়েছেন।

রাজ্যে ষষ্ঠ দফার নির্বাচনে মোট ১০২০ কোম্পানি সিএপিএফ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। যা পঞ্চম দফার তুলনায় ৫৬ শতাংশ বেশি। পঞ্চম দফায় বাহিনী ছিল ৬৫০ কোম্পানি। ১০২০ কোম্পানির মধ্যে ৯১৯ কোম্পানিকে বিভিন্ন বুথে মোতায়েন করা হচ্ছে এবং বাকি ১০১ কোম্পানি বাহিনীকে কুইক রেসপন্স টিম এবং রিজার্ভ হিসেবে রাখা হবে। এছাড়াও এই পর্বে রাজ্য পুলিশের ২৯,৪৬৮ জনকে বিভিন্ন কেন্দ্রে নির্বাচনের কাজে মোতায়েন করা হচ্ছে।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে এই ৮ কেন্দ্রের মধ্যে বিজেপি জয়ী হয়েছিল ৫ কেন্দ্রে। যথাক্রমে ঝাড়গ্রাম, বিষ্ণুপুর, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া এবং মেদিনীপুর। তৃণমূল জয়ী হয়েছিল কাঁথি, তমলুক এবং ঘাটাল কেন্দ্রে।

বিজেপি সূত্রের দাবি, এই বার ওই পাঁচ আসনের সঙ্গে কাঁথি ও তমলুক আসনও এবার তাঁরা তৃণমূলের হাত থেকে ছিনিয়ে নেবে। অন্যদিকে তৃণমূলের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে বিজেপি আগের নির্বাচনে যে পাঁচ আসনে জয়ী হয়েছিল এবার সেই পাঁচ আসনও তাদের থাকবে না।

এই আট আসনের মধ্যে বাম-কংগ্রেস ইন্ডিয়া মঞ্চের শরিক সিপিআইএম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে তমলুক, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া ও বিষ্ণুপুর কেন্দ্রে। সিপিআই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে ঘাটাল ও মেদিনীপুর কেন্দ্রে। পুরুলিয়া এবং কাঁথি কেন্দ্রে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে কংগ্রেস। যার মধ্যে তমলুক সহ একাধিক কেন্দ্রে জয়ের বিষয়ে আশাবাদী সিপিআইএম।

- with inputs from Agency 

GOOGLE NEWS-এ Telegram-এ আমাদের ফলো করুন। YouTube -এ আমাদের চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন।

logo
People's Reporter
www.peoplesreporter.in