Lakhimpur Kheri: নেতা হলেই কাউকে গাড়ির নীচে পিষে ফেলা যায় না: BJP নেতার মুখে লখিমপুর খেরির সমালোচনা

লখিমপুর খেরির ঘটনা নিয়ে বিজেপির ভেতর থেকে প্রথম প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন তিনবারের দলীয় সাংসদ বরুণ গান্ধী। এবার উত্তরপ্রদেশের বিজেপি প্রধান স্বতন্ত্র দেব সিং একইভাবে লখিমপুর খেরির ঘটনার প্রতিবাদ জানালেন।
Lakhimpur Kheri: নেতা হলেই কাউকে গাড়ির নীচে পিষে ফেলা যায় না: BJP নেতার মুখে লখিমপুর খেরির সমালোচনা
উত্তরপ্রদেশের বিজেপি প্রধান স্বতন্ত্র দেব সিংছবি স্বতন্ত্র দেব সিং-এর ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

এর আগে লখিমপুর খেরির ঘটনা নিয়ে বিজেপির ভেতর থেকে প্রথম প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন তিনবারের দলীয় সাংসদ বরুণ গান্ধী। এবার উত্তরপ্রদেশের বিজেপি প্রধান স্বতন্ত্র দেব সিং একইভাবে লখিমপুর খেরির ঘটনার প্রতিবাদ জানালেন। খেরির ঘটনা প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপি প্রধান বলেন - একজন রাজনৈতিক নেতা হওয়ার অর্থ এই নয় যে কেউ গাড়ি দিয়ে কাউকে পিষে দিতে পারেন।

সাংসদ বরুণ গান্ধীর পর এই প্রথম লখিমপুরের ঘটনার বিরুদ্ধে কোনও বিজেপি নেতা মুখ খুললেন। গত ৩ অক্টোবরের ওই ঘটনায় চার কৃষক সহ মোট ন'জনের মৃত্যু হয়।

রবিবার সন্ধ্যায় লখনউতে দলের সংখ্যালঘু ফ্রন্টের রাজ্য কার্যনির্বাহী সমিতির উদ্বোধনী অধিবেশনে ইউপি বিজেপি প্রধান দলীয় কর্মীদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখবার সময় বলেন - "আচরণের ভিত্তিতে নির্বাচন জিততে হবে। রাজনীতি হল আপনার সমাজ, আপনার জাতির সেবা করা। এখানে কোন জাতি এবং ধর্ম জড়িত নয়। একজন রাজনৈতিক নেতা হওয়ার অর্থ এই নয় যে আপনি লুট করবেন। এর অর্থ এই নয় যে আপনি কাউকে আপনার ফরচুন গাড়ি দিয়ে চাপা দেবেন। আমরা এই দলে আছি গরিব মানুষের সেবা করার জন্য। রাজনীতি আংশিক সময়ের কাজ নয়"।

সিংয়ের এই বক্তব্যের পরে মনে করা হচ্ছে যে বিজেপির অন্দর থেকেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অজয় মিশ্র টেনির ছেলে আশিষ মিশ্রের দিকে সরাসরি আঙুল তোলা হচ্ছে। যদিও বরুণ গান্ধী এবং স্বতন্ত্র সিং ছাড়া প্রকাশ্যে এখনও পর্যন্ত বিজেপির কোনো নেতা এই ঘটনা নিয়ে মুখ খোলেননি। উল্লেখ্য, লখিমপুর খেরিতে গাড়ি চাপা দিয়ে চার কৃষকের হত্যার ঘটনায় আশিস মিশ্র প্রধান অভিযুক্ত।

যদিও লখিমপুর খেরির ঘটনা নিয়ে বিরোধিতার পরেই স্বতন্ত্র দেব সিং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের প্রশংসা করেন এবং বলেন: "দরিদ্র পটভূমির দুজন ব্যক্তি ভারতের প্রধানমন্ত্রী এবং উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী যখন গরিবদের জন্য ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খোলেন তখন কেউ মাথা ঘামায়নি। না তারা দুজনই রাজ্যে সাত লাখ বাড়ি নির্মাণ করেছেন। কেউ কি ভোট এবং ধর্ম সম্পর্কে প্রশ্ন তুলেছিলেন? মোদির নেতৃত্বে অন্য দেশে টিকা পাঠানো হচ্ছে। গ্যাস, বিদ্যুৎ সংযোগ এবং টয়লেটের ব্যবস্থা করায় মানুষের জীবন বদলে যাচ্ছে।"

- with inputs from IANS

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in