লিঙ্গায়েত এফেক্ট! নিজেদের শক্ত ঘাঁটি উত্তর কর্ণাটক হারাতে চলেছে বিজেপি

যদিও নিজের নির্বাচনী এলাকা হুব্বালি কেন্দ্র থেকে পিছিয়ে রয়েছেন জগদীশ শেত্তার, তিনি উত্তর কর্ণাটকের লিঙ্গায়েত সম্প্রদায়ের শীর্ষ নেতা।
কংগ্রেসে যোগ দান জগদীশ শেত্তারের
কংগ্রেসে যোগ দান জগদীশ শেত্তারেরছবি সংগৃহীত

উত্তর কর্ণাটকে নিজেদের শক্ত ঘাঁটি হারাতে চলেছে বিজেপি। এটি লিঙ্গায়েত অধ্যুষিত এলাকা হিসেবে পরিচিত। লিঙ্গায়েতের শীর্ষ নেতারা কংগ্রেসকে সমর্থন করার জেরেই এমনটা হচ্ছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

যদিও নিজের নির্বাচনী এলাকা হুব্বালি কেন্দ্র থেকে পিছিয়ে রয়েছেন জগদীশ শেত্তার, তিনি উত্তর কর্ণাটকের লিঙ্গায়েত সম্প্রদায়ের শীর্ষ নেতা।

কর্ণাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জগদীশ শেত্তার এই হুব্বালি-মধ্য ধারওয়াড় কেন্দ্র থেকে ছ'বার বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছেন। এবার নির্বাচনে বিজেপি তাঁকে টিকিট না দেওয়ায় তিনি কংগ্রেসে যোগ দেন এবং এই কেন্দ্র থেকে কংগ্রেসের টিকিটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। বর্তমান ট্রেন্ড অনুযায়ী, এই কেন্দ্রে বিজেপির মহেশ টেঙ্গিনাকাই-এর তুলনায় ৩১ হাজার ভোটে পিছিয়ে আছেন তিনি।

উত্তর কর্ণাটকের বাকি কেন্দ্রগুলিতে এগিয়ে রয়েছে কংগ্রেস।

শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী মোট ২২৪ টি আসনের মধ্যে ১৩৬ টি আসনে এগিয়ে কংগ্রেস। এর মধ্যে ১৩০ টি আসনে কংগ্রেস প্রার্থীকে জয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। বিজেপি জয়ী হয়েছে ৫৮ টি আসনে, এগিয়ে রয়েছে ৫ টি আসনে। কুমারস্বামীর দল জেডিএস ২০ টি আসনে জয়ী হয়েছে।

পরাজয় স্বীকার করে নিয়েছেন বিজেপি নেতা তথা মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বোম্মাই। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী এবং বিজেপি কর্মীরা অনেক চেষ্টা করেছেন, তা সত্ত্বেও কোনও ছাপ ফেলতে পারিনি। পূর্ণাঙ্গ ফলাফল আসার পরেই, বিষয়টি নিয়ে আমরা বিশ্লেষণ করব। খতিয়ে দেখব, কোথায় আমরা পিছিয়ে পড়েছি। লোকসভা নির্বাচনের আগে এই ফলাফল বিশ্লেষণ করে আমরা আরও শক্তিশালী ভাবে ফিরে আসব।’

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
logo
People's Reporter
www.peoplesreporter.in