Gujarat Assembly Polls 22: বিজেপির প্রার্থী বাছাই ঘিরে চরম অসন্তোষ, বাড়ছে 'বিদ্রোহীর' সংখ্যা

প্রার্থী তালিকা নিয়েই দলের অন্দরে ক্ষোভ বাড়ছে। নেতা-কর্মীদের একাংশ দলের সিদ্ধান্ত নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। কেউ কেউ আবার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য নিজেদের 'নির্দল' প্রার্থী হিসাবে ঘোষণা দিয়েছেন।
বিজেপির প্রার্থী বাছাই ঘিরে 
চরম অসন্তোষ গুজরাটে
বিজেপির প্রার্থী বাছাই ঘিরে চরম অসন্তোষ গুজরাটেপ্রতীকী ছবি

১৮২ আসনের গুজরাট বিধানসভা নির্বাচনের (Gujarat Assembly Election) জন্য প্রথম দফায় ১৬০ জনের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছে বিজেপি (BJP)। তবে, বিজেপির এই প্রার্থী তালিকা নিয়েই দলের অন্দরে ক্ষোভ বাড়ছে। নেতা-কর্মীদের একাংশ দলের সিদ্ধান্ত নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। কেউ কেউ আবার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য নিজেদের 'নির্দল' প্রার্থী হিসাবে ঘোষণা দিয়েছেন।

দলে টিকিট না পাওয়ায় বিদ্রোহ ঘোষণা করেছেন ভাদোদরা'র ওয়াঘোদিয়া বিধানসভা কেন্দ্রের বর্তমান বিধায়ক মধু শ্রীবাস্তব। ৬ বারের বিধায়ক হিসাবে এই কেন্দ্রে কাজ করার পরেও বাদ পড়েছেন তিনি। সেই ক্ষোভে নির্দল প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। জানা যাচ্ছে, এই আসনে অশ্বিন প্যাটেলকে মনোনয়ন দিয়েছে বিজেপি।

সংবাদ মাধ্যমে শ্রীবাস্তব জানান, দলীয় নেতৃত্বের অনুমোদন পাওয়ার পরই তিনি মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। হঠাৎ করেই সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেছে দল। এই সিদ্ধান্তে দলের কর্মীরা ক্ষুব্ধ। তাই, নির্দল প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

এছাড়া, রাধনপুর এবং গান্ধীনগর দক্ষিণ কেন্দ্রের জন্য প্রার্থী ঘোষণা করেনি বিজেপি। তবে জানা যাচ্ছে, রাধনপুর কেন্দ্রে ওবিসি নেতা আলপেশ ঠাকুরকে যদি পুনরায় মনোনয়ন দেয় বিজেপি, তাহলে তার বিরোধিতা করবে দলের নেতা-কর্মীরাই। শুধু তাই নয়, গান্ধীনগর দক্ষিণ থেকেও যদি তিনি মনোনয়ন পান, সেখানেও বিজেপির মধ্যে বিদ্রোহের সম্ভাবনা রয়েছে।

অন্যদিকে, বিজেপি নেতা তথা প্রাক্তন বিধায়ক ধবলসিংহ জালা এবার টিকিট না পাওয়ায়, তিনিও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। জানা যাচ্ছে, শ্রীঘ্রই তিনি দলীয় কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে দেখা করবেন এবং তারপর নিজের ভবিষ্যত কর্মপন্থা ঠিক করবেন। তিনি সিদ্ধান্ত নেবেন বয়াদ বিধানসভা কেন্দ্রে নির্দল হিসাবে লড়বেন, না বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে দাঁড়াবেন (অন্য কোনও দল থেকে)।

মেহসানা আসনে মুকেশ দ্বারকাদাস প্যাটেল-কে প্রার্থী করেছে বিজেপি। তবে, দলীয় নেতৃত্বের এই সিদ্ধান্তকে ভালোভাবে নেয়নি দলীয় কর্মীরাই। পার্টির প্রাক্তন জেলা সভাপতি জসুভাই প্যাটেল সমর্থকদের সাথে পরামর্শ শুরু করেছেন। নির্দল প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার কথা ভাবছেন তিনি।

এখানেই শেষ নয়। মহুয়ার (ভাবনগর জেলা) বর্তমান বিধায়ক আর.সি. মাকওয়ানা-কে টিকিট না দেওয়ায় দলত্যাগ করেছেন কয়েক'শ বিজেপি কর্মী।

এমনকি, বোটাদ আসনে ঘনশ্যাম বিরানী-কে মনোনয়ন দেওয়া নিয়ে দলীয় সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করছেন শতাধিক নেতা। কয়েক'শ কর্মী-সমর্থক নিয়ে গান্ধীনগরে বিজেপির রাজ্য অফিসে গিয়েছেন গণপত কাসজারিয়া। তিনি সেখানে গিয়ে সৌরভ প্যাটেলকে পুনরায় মনোনয়ন দেওয়ার জন্য দলের কাছে দাবী জানিয়েছেন।

এছাড়া, ভাবনগরে, বিজেপির উপর ক্ষুব্ধ গোহিল রাজপুতরা। কারণ, এর আগে একাধিকবার এই কেন্দ্রে থেকে কোনও রাজপুত প্রার্থীদের মনোনয়ন দেয়নি গুজরাট বিজেপি।

এমনকি, বিজেপির বিরুদ্ধে ভোট দেওয়ার জন্য প্রজাপতি সম্প্রদায় (Prajapati community)-কে আর্জি জানিয়েছেন- এই সম্প্রদায়েরই নেতা দীনেশ প্রজাপতি (Dinesh Prajapati)।

বিজেপির প্রার্থী বাছাই ঘিরে 
চরম অসন্তোষ গুজরাটে
Gujarat Assembly Polls 22: বাংলার মতোই গুজরাটেও দলবদলুদের উপর ভরসা ২৭ বছর ক্ষমতায় থাকা বিজেপির

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in