ভোটমুখি গুজরাটে বিজেপির অন্দরে বিদ্রোহের আগুন, সাসপেন্ড আরও ১২ নেতা-MLA, মোট ১৯

জানা যাচ্ছে, এই সাসপেন্ডের মেয়াদ ৬ বছর, এই সময়ের মধ্যে তাঁরা দলের সদস্য হিসেবে কাজ করতে পারবেন না।
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

গুজরাটে (Gujarat) বিধানসভা নির্বাচনের আগেই তুলকালাম বিজেপি শিবিরে। নির্বাচনে দলের টিকিট না পেয়ে নির্দল প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন জমা দেওয়ায়, দুই দফায় মোট ১৯ জন বিধায়ক ও প্রবীন নেতাকে সাসপেন্ড করেছে বিজেপি (BJP)। জানা যাচ্ছে, এই সাসপেন্ডের মেয়াদ ৬ বছর, এই সময়ের মধ্যে তাঁরা দলের সদস্য হিসেবে কাজ করতে পারবেন না।

গুজরাটে মোট ১৮২ টি আসনে, দু'দফায় বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে- ১ ও ৫ ডিসেম্বর। প্রথম পর্বে, অর্থাৎ ১ ডিসেম্বরের জন্য নির্দল প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন দেওয়ায়, গত রবিবার, ৭ জন নেতাকে সাসপেন্ড করেছিল বিজেপি।

এরপর মঙ্গলবার, আরও ১২ জনকে সাসপেন্ড করেছে বিজেপি। যারা, আগামী ৫ ডিসেম্বরের নির্বাচনে বিজেপির বিরুদ্ধে নির্দল প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।

এর অর্থ, মোট ১৮২ টি আসনের মধ্যে কমপক্ষে ১০ শতাংশ প্রার্থী বিক্ষুব্ধ বিজেপি। যাঁরা, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহের অনুরোধ সত্ত্বেও গুজরাটে বিজেপির বিরুদ্ধে নির্বাচনী প্রতিযোগিতা থেকে সরে দাঁড়াননি।

বিক্ষুব্ধ নেতাদের মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য হলেন ভাঘোদিয়ার (ভাদোদরা জেলা) বর্তমান বিধায়ক মধু শ্রীবাস্তব (Madhu Shrivastav), পাদ্রার প্রাক্তন বিধায়ক দিনুভাই প্যাটেল (Dinu Bhai Patel), বায়াদের প্রাক্তন বিধায়ক ধবলসিংহ জালা (Dhavalsinh Zala)।

এছাড়া, বিজেপির রাজ্য সভাপতি সি আর পাতিল (CR Paatil) আরও যে সকল বিজেপি নেতাদের সাসপেন্ড করেছেন, তাঁদের মধ্যে রয়েছেন ভাদোদরা জেলার কুলদীপসিংহ রাউল (সাভলি কেন্দ্র), পঞ্চমহল জেলা থেকে খাতুভাই পাগি (শেহরা কেন্দ্র), আরাবল্লি জেলা থেকে রামসিংহ ঠাকুর (খেরালু কেন্দ্র), বনাসকাঁথা জেলার মাভজিভাই দেশাই (ধনেরা কেন্দ্র) এবং লেবজি ঠাকুর (ডিসা বিধানসভা কেন্দ্র), বানাসকাঁথা জেলা থেকে এস এম খান্ত (লুনাওয়াদা কেন্দ্র) ও জে পি প্যাটেল (লুনাওয়াদা কেন্দ্র), এবং মহিসাগর জেলা থেকে রমেশ জালা (উমরেথ কেন্দ্র) ও অমরশি জালা (খম্ভাত কেন্দ্র)।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in