Bihar: গোপালগঞ্জ আসন অল্পের জন্য হাতছাড়া, RJD-র চিন্তা বাড়াচ্ছে BSP ও AIMIM-র ভোট কাটা

তেজস্বী যাদব বলেন - মাত্র ১,৭৯৪ ভোটের ব্যবধানে গোপালগঞ্জে পরাজয় ঘটেছে। যেখানে, গত বিধানসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রে RJD প্রার্থী ৪০,০০০-র বেশি ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছিলেন বিজেপি প্রার্থীর কাছে।
Bihar: গোপালগঞ্জ আসন অল্পের জন্য হাতছাড়া, RJD-র চিন্তা বাড়াচ্ছে BSP ও AIMIM-র ভোট কাটা
ছবি - সংগৃহীত

বিহার বিধানসভা উপ-নির্বাচনের আরজেডি (RJD) এবং বিজেপি (BJP)- উভয় দলই একটি করে আসনে জিতেছে। তবে, রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা জানাচ্ছেন- এই নির্বাচনী ফলাফল উভয় দলের জন্যই আল্টিমেটাম বা সতর্কতা। কারণ, দুই দলেরই জয়ের ব্যবধান বড় আকারে কমে এসেছে।

বিহার উপ-নির্বাচনে মোকামা (Mokama) কেন্দ্রে জয়লাভ করেছেন আরজেডি (RJD) প্রার্থী নীলম সিং। তিনি পেয়েছেন ৭৯,৭৪৪ টি ভোট। অন্যদিকে, বিজেপির সোনম দেবী পান ৬৩,০০৩ টি ভোট। দুজনের মধ্যে ভোটের ব্যবধান মাত্র ১৬,৭৪১ টি ভোট। কিন্তু, ২০২০ সালে এই কেন্দ্রে আরজেডির জয়ের ব্যবধান ছিল প্রায় ৩৬,০০০-এর বেশি ভোট।

আর, তা নিয়ে আরজেডি-কে কটাক্ষ করেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজ সিং। তিনি বলেন, ‘মোকামায় বিজেপি প্রার্থী সোনম দেবীর বিরুদ্ধে মাত্র ১৬,০০০ ভোটে জিতেছে আরজেডি-র নীলম সিং। গত বিধানসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রে ৩৬,০০০ এর বেশি ভোটে জিতেছিলেন নীলমের স্বামী তথা 'বাহুবলী' নেতা অনন্ত সিং। ফলে, এটা স্পষ্ট ইঙ্গিত যে মোকামার রাজনৈতিক ময়দানে ভালো জায়গা করেছে বিজেপি। এই জয় অনন্ত সিংয়ের জন্য, আরজেডি-র জন্য নয়।’

অন্যদিকে, বিহারের উপ-মুখ্যমন্ত্রী এবং RJD নেতা তেজস্বী যাদব বলেন, ‘মাত্র ১,৭৯৪ ভোটের ব্যবধানে গোপালগঞ্জে পরাজয় ঘটেছে। যেখানে, গত বিধানসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রে RJD প্রার্থীকে ৪০,০০০এর বেশি ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করেছিলেন বিজেপি প্রার্থী তথা প্রয়াত বিধায়ক সুভাষ সিং। গোপালগঞ্জে আরজেডি ভালো শক্তি সঞ্চয় করেছে। যদি AIMIM এবং সাধু যাদব 'ভোটকাটুয়ার’ ভূমিকা না পালন করত, তাহলে সহজে এই আসনেও জয়ী হত আরজেডি।’

জানা যাচ্ছে, গোপালগঞ্জ কেন্দ্রের উপ-নির্বাচনে বিজেপি প্রার্থী বিজেপির কুসুম দেবী পেয়েছেন ৭০,০৫৩ টি ভোট। আর, আরজেডি প্রার্থী মোহন প্রসাদ গুপ্ত পেয়েছেন ৬৮,২৫৯ টি ভোট। আর, এই কেন্দ্রে পরাজয়ের জন্য আসাদউদ্দিন ওয়াইসির AIMIM-কে দায়ী করেছেন আরজেডি সাংসদ আহমেদ আসফাক করিম।

তিনি বলেছেন, ‘অন্যান্য রাজ্যের মতো বিহারেও মহাগঠবন্ধনকে পরাজিত করতে এসেছিলেন ওয়াইসি। তার দল AIMIM দেশের একটি জাতীয় 'ভোট-কাটুয়া' (ভোট কাটার) দল। সংখ্যালঘুদের ভোট বিভক্ত করার জন্য এটি বিজেপির একটি B-টিম। হায়দরাবাদ থেকে বিহারে এসে মহাগঠবন্ধনকে পরাজিত করা ছিল ওয়াইসির কাজ ছিল। সংখ্যালঘু মানুষেরা এই সত্যটি উপলব্ধি করে- যেন বিহার এবং অন্যান্য রাজ্যে AIMIM-এর মতো দলকে ভোট না দেয়।’

তবে, গোপালগঞ্জের নির্বাচনী ফলাফলের পর, ২০২৪ সালের লোকসভা এবং ২০২৫ সালের বিধানসভা নির্বাচনে বিহারে নতুন করে আশার আলো দেখছে AIMIM এবং বিএসপি। কারণ, গোপালগঞ্জে, বিএসপির টিকিটে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে সাধু যাদবের স্ত্রী ইন্দিরা যাদব পেয়েছেন ৮,৮৫৩ টি ভোট। অন্যদিকে, এই কেন্দ্র থেকে AIMIM-এর আবদুল সালাম পেয়েছেন ১২,২১২ টি ভোট।

নির্বাচনী ফলাফলের আগে শেষ রাউন্ড পর্যন্ত RJD এবং BJP প্রার্থীর মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলে। শেষ পর্যন্ত বিজেপি প্রার্থী জয়লাভ করে। আর, বিজেপির এই জয়ে বিএসপি প্রার্থী ইন্দিরা যাদব এবং AIMIM প্রার্থী আবদুল সালামের ভূমিকা উড়িয়ে দেওয়া যাবে না।

এই হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে এই দু'জনই RJD প্রার্থীর জন্য 'ভোট কাটার' হয়ে উঠেছেন। আরজেডিতে মুসলিম এবং যাদব (এমওয়াই) এর ভোট ব্যাঙ্ক রয়েছে এবং এই দুই প্রার্থী মিলে ২১,০০০-এর বেশি ভোট পেয়েছেন।

Bihar: গোপালগঞ্জ আসন অল্পের জন্য হাতছাড়া, RJD-র চিন্তা বাড়াচ্ছে BSP ও AIMIM-র ভোট কাটা
Telangana: মুনুগোডে উপনির্বাচনে পরাজয় তেলেঙ্গানায় বিজেপির জন্য বড়ো ধাক্কা

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in