নিট বাতিলের দাবির পিছনে বিরোধীদের স্বার্থ আছে! দুর্নীতি প্রসঙ্গে মন্তব্য কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রীর

People's Reporter: নিটে যে ১৫৬৩ জনের পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে, বাড়তি নম্বর পাওয়ার জন্য, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ, আবার তারা পরীক্ষা দিতে পারবে চাইলে। আগামী ২৩ জুন পরীক্ষা।
কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান
কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধানফাইল ছবি সংগৃহীত

নিট দুর্নীতি নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে দেশ জুড়ে। উঠেছে টাকা নিয়ে পরীক্ষায় বিপুল নম্বর দেওয়ার অভিযোগ। পরীক্ষার বিশ্বাসযোগ্যতা এবং স্বচ্ছতা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। এই পরিস্থিতিতে পরীক্ষার্থীদের আতঙ্কিত না হওয়ার বার্তা দিলেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান। তিনি জানান, “কিছু অসঙ্গতি প্রকাশ্যে এসেছে। আমরা বিষয়টি সম্পর্কে অবগত। সুপ্রিম কোর্টও একটি রায় দিয়েছে। এর পরে কোনও বিভ্রান্তি থাকা উচিত নয়।“

এক সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় ধর্মেন্দ্র প্রধান বিরোধীদের নিশানা করে বলেন, “নিট বাতিলের প্রয়োজনীয়তা কী? এর নেপথ্যে বিরোধীদের একটি স্বার্থ রয়েছে। গত বছরের নিটে যিনি প্রথম হয়েছিলেন, তিনি তামিলনাড়ুর পড়ুয়া। তামিলনাড়ুর এক গ্রামের বাসিন্দা। আসল অভিযোগ কী, সেটাই বোঝা যাচ্ছে না।“

তিনি আরও জানান, “কিছু অভিযোগ এবং আলগা তথ্য উঠে আসছে। আমাদের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের তদন্তের জন্য অপেক্ষা করা উচিত। সুপ্রিম কোর্টের রায়ের জন্য ৮ জুলাই পর্যন্ত অপেক্ষা করা যাক। এই নিয়ে লুকোনোর কিছু নেই।“

সুপ্রিম কোর্টের হস্তক্ষেপের আগে এই অভিযোগ নিয়ে পরীক্ষা পরিচালনা সংস্থা এনটিএ কেন মাথা ঘামায়নি? এপ্রসঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী জানান, “এই কথা সত্য নয়। অসঙ্গতি প্রকাশ্যে আসার পরই এনটিএ গ্রেস মার্ক ফর্মুলা চালু করেছিল। সুপ্রিম কোর্টও তা উদ্ধৃত করেছে। তবে, সেই সূত্রে কিছু অসঙ্গতি থেকে গিয়েছিল। কারণ, নম্বর বাড়িয়ে দেখা যায়, ছ’জন পরীক্ষার্থী প্রথম হয়েছেন।“

পাশাপাশি, ধর্মেন্দ্র আরও জানান, ভারতে ৪৭০০ কেন্দ্রে এবং ভারতের বাইরে ১৪টি কেন্দ্রে ১৩টি ভাষায় এই প্রবেশিকা পরীক্ষা নেওয়া হয়। পরীক্ষা দেন ২৩ লক্ষেরও বেশি পরীক্ষার্থী। তিনি বলেন, “দু’টি কেন্দ্র নিয়ে কিছু অভিযোগ রয়েছে। যাঁরা দুর্নীতি করেছেন, তাঁদের অবশ্যই কঠিন শাস্তি হবে।“

নিটে ১৫৬৩ জনের পরীক্ষা বাতিল করা হয়েছে গ্রেস নম্বর পাওয়ার জন্য। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ, আবার তারা পরীক্ষা দিতে পারবে চাইলে। আগামী ২৩ জুন পরীক্ষা। এই নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী জানান, “যাঁরা আগ্রহী, তাঁরা ছ’টি নির্দিষ্ট কেন্দ্রে পুনরায় পরীক্ষা দিতে পারেন। ওই পরীক্ষার্থীদের অভিযোগ ছিল তাঁরা পরীক্ষা দেওয়ার পর্যাপ্ত সময় পাননি। দেরীতে পেপার দেওয়া হয়েছে। তাই তাঁদের গ্রেস নম্বর দেওয়া হয়েছে।“

প্রসঙ্গত, গত ৪ জুন নিটের ফল প্রকাশ হয়েছে। তাতে দেখা যাচ্ছে ৬৭ জন পরীক্ষার্থী ৭২০ নম্বরের মধ্যে ৭২০ নম্বরই অর্জন করেছে। আবার এমন অনেক পরীক্ষার্থী রয়েছে যারা ৭১৭, ৭১৮ নম্বর পেয়েছে। কিন্তু নেগেটিভ মার্কিং দিলে ৭১৭ বা ৭১৮ নম্বর কোনোভাবেই একজন পরীক্ষার্থী পেতে পারে না। এনটিএ জানিয়েছিল ওই প্রার্থীদের গ্রেস মার্কস দেওয়া হয়েছে। তারপরই দুর্নীতির অভিযোগ তুলে আদালতে মামলা দায়ের হয়।

কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান
NEET 2024: পুনরায় নিট দিতে হবে ১৫৬৩ জন পরীক্ষার্থীকে! গ্রেস নম্বর বাতিল করে আদালতে জানালো কেন্দ্র
কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান
NEET 2024: নিটেও একাধিক কারচুপি! পরীক্ষার্থীদের ভবিষ্যত নিয়ে খেলা হচ্ছে - বিজেপিকে নিশানা কংগ্রেসের

GOOGLE NEWS-এ Telegram-এ আমাদের ফলো করুন। YouTube -এ আমাদের চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন।

Related Stories

No stories found.
logo
People's Reporter
www.peoplesreporter.in