কার্যকারিতা বিচার না করে এখনই স্পুটনিক লাইটকে দেশে ছাড়পত্র দিতে নারাজ কেন্দ্র

স্পুটনিক লাইট টিকার তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালের বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা
কার্যকারিতা বিচার না করে এখনই স্পুটনিক লাইটকে দেশে ছাড়পত্র দিতে নারাজ কেন্দ্র
স্পুটনিক লাইট ভ্যাকসিনফাইল চিত্র

এখনও পর্যন্ত যত ভ্যাকসিন এসেছে, সবক'টির ক্ষেত্রেই দু'টি ডোজ নেওয়া বাধ্যতামূলক। কিন্তু রাশিয়ার স্পুটনিক লাইট একটি ডোজ নিলেই প্রয়োজনীয় প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তোলা যাবে। এমনটাই দাবি প্রস্তুতকারক সংস্থার। ফলে রাশিয়ার এই ভ্যাকসিন নিয়ে উত্তেজনা ছিল বিশ্ব জুড়েই। কিন্তু এই টিকার তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষামূলক যে প্রয়োগ হয়েছে, সেই তথ্য নিয়ে খুশি নয় কেন্দ্রীয় ওষুধ নিয়ন্ত্রণ কমিটি।

উল্লেখ্য, মস্কোর গামালেয়া গবেষণা ইনস্টিটিউট অফ এপিডেমিওলজি এবং মাইক্রোবায়োলজির তৈরি স্পুটনিক লাইট মূলত স্পুটনিক ভি-এর প্রথম ডোজ হলেও স্পুটনিক লাইটের একটি টিকাই যথেষ্ট বলে দাবি করা হয়েছে। তবে স্পুটনিক লাইট টিকার তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালের বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

এই টিকার শেষ পর্যায়ের ট্রায়ালের জন্য আবেদন জানিয়েছিল হায়দরাবাদের ডক্টর রেড্ডি’জ ল্যাবরেটরি। সেই প্রস্তাব খতিয়ে দেখতে গিয়ে কেন্দ্রীয় বিশেষজ্ঞ কমিটি জানিয়েছে যে, তারা বিশদে আলোচনার পরে সুপারিশ করেছে। রাশিয়ার স্পুটনিক লাইটের ক্লিনিকাল ট্রায়ালের নিরাপত্তা, প্রতিরোধ ক্ষমতা এবং কার্যকারিতা তথ্য বিচার করেই অনুমোদন দেওয়া হবে। পর্যাপ্ত তথ্য ছাড়া এই ভ্যাকসিনকে এখনই ছাড়পত্র দিতে নারাজ কেন্দ্র।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.