‘Dolo 650’ লিখতে চিকিৎসকদের ১০০০ কোটি টাকা বিতরণ - ‘গুরুতর সমস্যা’ মন্তব্য সুপ্রিম কোর্টের

জ্বর নিরাময়কারী ওষুধ হিসেবে রোগীকে ‘ডোলো-৬৫০’ খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকরা। এ নিয়ে অভিযোগ ওঠায়, ১৫ জুলাই ট্যাবলেট প্রস্তুতকারক সংস্থা নিয়ে তদন্ত চালায় সেন্ট্রাল বোর্ড ফর ডাইরেক্ট ট্যাক্সেস।
‘Dolo 650’ লিখতে চিকিৎসকদের ১০০০ কোটি টাকা বিতরণ - ‘গুরুতর সমস্যা’ মন্তব্য সুপ্রিম কোর্টের
গ্রাফিক্স - সুমিত্রা নন্দন

রোগীদেরকে ‘ডোলো-৬৫০’ ট্যাবলেট খাওয়ার পরামর্শ দিতে চিকিৎসকদের ১০০০ কোটি টাকা বিতরণ করেছে ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা। বৃহস্পতিবার, সুপ্রিম কোর্টে এই তথ্য জানিয়েছে সেন্ট্রাল বোর্ড ফর ডাইরেক্ট ট্যাক্সেস (CBDT)

জ্বর নিরাময়কারী ওষুধ হিসেবে রোগীকে ‘ডোলো-৬৫০’ খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকরা। এ নিয়ে অভিযোগ ওঠায়, ১৫ জুলাই ট্যাবলেট প্রস্তুতকারক সংস্থা নিয়ে তদন্ত চালায় সেন্ট্রাল বোর্ড ফর ডাইরেক্ট ট্যাক্সেস। তারপরেই, উঠে আসে এই তথ্য। বৃহস্পতিবার শীর্ষ আদালতে CBDT সে কথাই জানিয়েছে।

শুধু CBDT নয়, একই অভিযোগ করেছে ফেডারেশন অব মেডিক্যাল অ্যান্ড সেলস রিপ্রেজেন্টেটিভস অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্ডিয়া (FMRAI)। শীর্ষ আদালতে FMRAI-এর পক্ষে আইনজীবি সঞ্জয় পারিখ দাবি করেন, চিকিৎসকরা যাতে তাদের তৈরি ট্যাবলেটটি রোগীর প্রেসক্রিপশনে লেখেন, সেই উদ্দেশে ১০০০ কোটি টাকা বিতরণ করেছে ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা।

এপসঙ্গে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড় (Justice D.Y. Chandrachud) বলেন, এটি একটি গুরুতর সমস্যা। এমনকী তিনি যখন কোভিড -১৯ আক্রান্ত হয়েছিলেন, তখনও তাকে একই পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল।

বিচারপতি বলেন, 'এটা শুধু আমার কানে শোনা কথা নয়। আমি যখন করোনা সংক্রমিত হই, তখনও আমাকেও একই কথা বলা হয়েছিল। এটা একটা গুরুতর সমস্যা। উদ্বেগের বিষয় তো বটেই।'

এ ইস্যুতে কেন্দ্রের বক্তব্য জানতে চেয়েছেন বেঞ্চের আর এক বিচারপতি এ এস বোপান্না (Justice A.S. Bopanna)। অতিরিক্ত সলিসিটার জেনারেল কে এম নটরাজ-কে নির্দেশ দিয়েছেন, ‘আগামী ১০ দিনের মধ্যে উত্তর দাখিল করতে হবে।’

মামলার আবেদনে FMRAI-এর তরফে বলা হয়েছে, ‘স্বাস্থ্য পরিষেবায় যুক্ত ব্যাক্তিদের সঙ্গে ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানিগুলি যেভাবে অনৈতিক বিপণন অনুশীলন করছে, সেক্ষেত্রে ভারতের সংবিধানের ২১ অনুচ্ছেদের অধীনে জীবনের অধিকারে অন্তর্ভুক্ত স্বাস্থ্যের মৌলিক অধিকার প্রয়োগ হোক। কেননা, প্রেসক্রিপশনে অযৌক্তিক এবং উচ্চ-মূল্যের ওষুধ কেনার জন্য চাপ দেওয়া হয়েছে। এটি এমন অভ্যাস, যা নাগরিকদের স্বাস্থ্যকে সরাসরি প্রভাবিত করে, যা সংবিধানের ২১ অনুচ্ছেদের অধীন স্বাস্থ্যের অধিকারকে লঙ্ঘন করে।’

মামলার আবেদনে দাবি করা হয়েছে, স্বাস্থ্যের অধিকার নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে যে ঘাটতি রয়েছে, তা যথাযথ আইনের মাধ্যমে দ্রুত পূরণ করার উপযুক্ত সময় এসেছে। আবেদনে বলা হয়েছে, ফার্মাসিউটিক্যাল সেক্টরে দুর্নীতি মাথা চাড়া দিয়েছে, এমন প্রচুর উদাহরণ রয়েছে। এর ফলে জনস্বাস্থ্য বিপন্ন হচ্ছে, রোগীরাও স্বাস্থ্য ঝুঁকির মধ্যে পড়ছেন।

‘Dolo 650’ লিখতে চিকিৎসকদের ১০০০ কোটি টাকা বিতরণ - ‘গুরুতর সমস্যা’ মন্তব্য সুপ্রিম কোর্টের
MonkeyPox: সঠিক নির্দেশিকা অভাবে ব্যাহত হচ্ছে মাঙ্কিপক্স মোকাবিলার চিকিৎসা - গবেষণা

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
logo
People's Reporter
www.peoplesreporter.in