Mental Health: স্কুল থেকেই মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতা শুরু করতে হবে - মত বিশেষজ্ঞদের

দিল্লি হত্যার কথা উল্লেখ করে খান বলেন, একজন বা উভয়েরই কিছু মানসিক সমস্যা থাকতে পারে। যা পেশাগতভাবে মূল্যায়ন করা প্রয়োজন।
নিহত শ্রদ্ধা
নিহত শ্রদ্ধাফাইল ছবি, আইএএনএস ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

দিল্লিতে তার লিভ-ইন সঙ্গীর হাতে পালঘরের মহিলা শ্রদ্ধা ওয়াকারকে নৃশংসভাবে খুন এবং তার শরীরকে একাধিক টুকরো টুকরো করার ঘটনায়, মুম্বাইয়ের এক বিশিষ্ট মনোরোগ বিশেষজ্ঞ সরকারকে স্কুল পর্যায় থেকেই শিশুদের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে মানসিক স্বাস্থ্য কোর্স চালু করার আহ্বান জানিয়েছেন।

মনোরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ সাজিদ খান বলেন, "শুরুতে, মানসিক রোগ, তাদের ধরন, কীভাবে তা মোকাবিলা করা যায়, ইত্যাদি প্রসঙ্গে বিজ্ঞান বিষয়ে একটি অধ্যায় থাকতে পারে। যা ভারতে মানসিক অসুস্থতার সাথে সম্পর্কিত সমস্যা দূর করবে৷ এখানে, এই জাতীয় রোগীদের ‘পাগল’ বলে শুধু উপহাস করা হয়। যা একেবারেই ভুল।"

দিল্লি হত্যার কথা উল্লেখ করে খান বলেন, একজন বা উভয়েরই কিছু মানসিক সমস্যা থাকতে পারে। যা পেশাগতভাবে মূল্যায়ন করা প্রয়োজন। তিনি অভিযুক্ত আফতাব এ পুনাওয়ালাকে কোনও বিশেষ সুবিধা দেওয়া এড়াতে কোনও বিষয়ে দাগিয়ে দেওয়ার বিরুদ্ধে সতর্ক করেছেন।

হেলথস্প্রিং-এর মনোরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ সাগর মুন্ডাদা মনে করেন, পুনাওয়ালাকে "খুবই আত্মবিশ্বাসী", "স্বাভাবিক দেখায়", "বিচলিত নয়" বলে উদ্ধৃত বিষয়গুলি "একজন মানসিক ব্যক্তিত্বের সূচক"। যদিও এই রিপোর্টগুলো ইঙ্গিত করে যে তার কাজের পিছনে আসল উদ্দেশ্য তদন্তকারীদের নজর এড়িয়ে গেছে।

ডাঃ খান-এর মতে "এটি সম্ভবত একটি আবেগপ্রবণ কাজ বা যথেষ্ট নির্মমও ছিল। তারা অবশ্যই প্রথমে তিক্তভাবে ঝগড়া করেছিল, তারপরে শারীরিক লড়াইয়ে নেমেছিল এবং যেহেতু সে আরও শক্তিশালী ছিল, তাই মুহূর্তের কোনো আঘাতে তাকে মেরে ফেলতে পারে। তবে পরে সে অবশ্যই তার কাজ বুঝতে পেরেছিল এবং এরপর "সুচিন্তিতভাবে পরিকল্পিত" উপায়ে কীভাবে একটি বিশাল ফ্রিজ কিনে, তাকে টুকরো টুকরো করে এবং ধীরে ধীরে অপরাধটি মুছে ফেলার চেষ্টা করে।

তার আপাত "স্বাভাবিকতা" সম্পর্কে, মুন্ডাদা মনে করেন, এটি মানসিক স্বাস্থ্যের সমস্যাগুলির দিকে ইঙ্গিত করে। যার জন্য একটি সম্পূর্ণ রোগ নির্ণয়ের প্রয়োজন হতে পারে। কারণ এই ধরনের অনেক রোগীকে এক ধরণের ক্যারিশম্যাটিক আকর্ষণের সাথে মনে হয় "খুব কমনীয়, যা অন্যদেরকে বোকা বানাতে পারে।

মুন্ডাদা বলেন - "তাই মাথা ঠান্ডা করে তাদের ভয়ানক কাজ সত্ত্বেও তারা প্রভাবিত হন না বলে মনে হয়। কারণ তাদের আবেগগুলি সাধারণ মানুষের থেকে আলাদাভাবে কাজ করে।"

এটাকে একটা ‘ডিলিউশনাল ডিসঅর্ডার’ বলে সন্দেহ করে খান বলেন, এই ঘটনা বা অন্যান্য অনুরূপ ঘটনায়, মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যাগুলির জন্য পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্ত করা প্রয়োজন এবং কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছানোর আগে ভালো করে বিশ্লেষণ করা দরকার।

বিষয়টির ব্যাখ্যা করে ডাঃ খান বলেন, "আধুনিক সময়ে, তরুণরা আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হয়ে উঠছে। তাঁরা অনেক সচেতন, বিভিন্ন বিষয়ে তাদের নিজস্ব সিদ্ধান্ত নেয়, অথবা এমন কিছু "আসক্তি"ও থাকতে পারে যা প্রায়শই এই ধরনের জঘন্য অপরাধ ঘটিয়ে থাকে।"

দিল্লিতে শ্রদ্ধা হত্যাকাণ্ডের আগে, সাম্প্রতিক বছরগুলিতে মহারাষ্ট্রে এমন বেশ কিছু ঘটনা দেখা গেছে। যেখানে কিছু ক্ষেত্রে এমনকি প্রেমে ব্যর্থ হওয়া মহিলারাও অপরাধী হয়েছেন।

ফেব্রুয়ারী ২০২০-তে, একজন প্রত্যাখ্যাত প্রেমিক তার প্রেমিকা, জুনিয়র কলেজের অধ্যাপক ২৪ বছর বয়সী অঙ্কিতা পিসুদ্দেকে ওয়ারধার রাস্তায় প্রকাশ্যে পেট্রোল ঢেলে পুড়িয়ে দেয় বলে অভিযোগ। এক সপ্তাহ পরে তিনি মারা যান এবং অভিযুক্ত বিকেশ নাগরালেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে একটি বিপরীত ঘটনা প্রকাশ পায়। সেবার নাসিকের লোহোনারের ২৫-বছর-বয়সী গোরখ কে. বাছাভকে গরম লোহার রড দিয়ে আক্রমণ করে তার প্রেমিকা। ২৩ বছর বয়সী ওই প্রেমিকার আক্রমণে গুরুরত অসুস্থ ব্যক্তি এখন সুস্থ। জানা গেছে এই দুই প্রেমিক প্রেমিকার পরিবারের পক্ষ থেকে তাঁদের বিয়েতে আপত্তি জানানো হয়। এরপরেই প্রেমিকার হাতে আক্রান্ত হন ওই যুবক। এই ঘটনায় মেয়েটিকে এবং তার পরিবারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আফতাবের ক্ষেত্রে, মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা তাকে এখনই "সাইকো-কিলার" বলতে রাজি নন। কারণ সেক্ষেত্রে বিচার ব্যবস্থা প্রভাবিত হতে পারে। বরং এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করার আগে তাঁরা চান পুলিশ পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্ত করুক এবং আততায়ীর যথাযথ শারীরিক ও মানসিক পরীক্ষা করা দরকার।

দিল্লি পুলিশের বক্তব্য অনুসারে, আফতাব এখন তাদের হেফাজতে। তাকে এখনও অনুতপ্ত বলে মনে হচ্ছে। সে সেলে খাওয়াদাওয়া করছে এবং ভাল ঘুমাচ্ছে। যে ঘটনাকে বিশেষজ্ঞরা গভীর মানসিক সমস্যার লক্ষণ বলে জানাচ্ছে এবং বিষয়টির গভীরভাবে তদন্ত করা দরকার বলে তাঁদের অভিমত।

মুন্ডাদা এবং খান উভয়েই অনুতপ্ত যে ভারতীয়দের মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যাগুলির ধরন বা মাত্রা সম্পর্কে কোনও বিস্তৃত গবেষণা বা নির্ভরযোগ্য তথ্য নেই, যা সময়মত প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থার পরামর্শ দেওয়ার জন্য বৈজ্ঞানিকভাবে এই জাতীয় ঘটনাগুলিকে বিশ্লেষণে সহায়তা করতে পারে।

নিহত শ্রদ্ধা
Mehrauli Murder: দুর্গন্ধ এড়াতে ধূপকাঠি, টুকরো টুকরো দেহাবশেষ রাখা হয়েছিল ফ্রিজে!
নিহত শ্রদ্ধা
Delhi: লিভ ইন সঙ্গীকে হত্যা, ৩৫ টুকরো করে বিভিন্ন জায়গায় দেহ ফেললো আততায়ী

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in