Jharkhand: হাসপাতালের বিশেষ বিভাগের উদ্বোধনে এসে রক্ত দিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী, বাঁচালেন মুমূর্ষুকে

শনিবার মন্ত্রী গুপ্তা এম.জি.এম হাসপাতালে উদ্বোধন করেন একটি বিশেষ চিকিৎসা বিভাগ। যেখানে এক্স-রে, আল্ট্রাসাউন্ড এবং সিটি-স্ক্যান সমস্তরকম পরিষেবা স্বল্পমূল্যে দেওয়া হবে।
রক্তদান করছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী বান্না গুপ্তা
রক্তদান করছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী বান্না গুপ্তাছবি - সংগৃহীত

শনিবার (২রা জুলাই) ঝাড়খণ্ডের স্বাস্থ্য ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী বান্না গুপ্তা জামশেদপুরের এম.জি.এম সরকারি হাসপাতালে একটি সরকারী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়েছিলেন। সেখানে গিয়ে একজন রোগীকে রক্তদান করেছেন তিনি।

রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হাসপাতাল পরিদর্শন ও স্বাস্থ্যবিভাগ উদ্বোধন করতে এসেছিলেন। সেই খবর জানতে পেরে তৎক্ষণাৎ মন্ত্রীর কাছে সাহায্যের জন্য ছুটে যান এক রোগীর স্ত্রী। তাঁর ৪৯ বছরের স্বামীর জন্য জরুরি ভিত্তিতে রক্তের প্রয়োজন ছিল। তিনি কিছুতেই রক্তের ডোনার খুঁজে পাচ্ছিলেন না। শেষে মন্ত্রী বান্না গুপ্তাকে অনুরোধ করায়, তড়িঘড়ি নিজেই রক্ত দেবার জন্য রাজি হয়ে যান ঝাড়খণ্ডের স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

ঝাড়খণ্ডের কালিকাপুরের, পটকা ব্লকের বাসিন্দা ওই মহিলা মন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে দু’হাত তুলে আশীর্বাদ করেছেন। এই প্রসঙ্গে, মন্ত্রী বান্না গুপ্ত ওই মহিলাকে ‘বোন’ বলে সম্বোধন করে বলেছেন, “বোনের স্বামীকে বাঁচাতে পেরে ধন্য। মানুষ হিসাবে আমার দায়িত্ব পালন করেছি মাত্র।”

এর আগেও মন্ত্রীমশাইয়ের এই কর্মকান্ডের নজির পাওয়া যায়। মার্চ মাসের বিধানসভা অধিবেশনে যোগ দিতে জামশেদপুর থেকে রাঁচি যাচ্ছিলেন মন্ত্রী বান্না গুপ্তা। যাবার পথে তিনি সেরাইকেলা-খারসওয়ান জেলার দুলমিতে ঘটে যাওয়া এক সড়ক দুর্ঘটনায় আহত তিন যুবককে আহত অবস্থায় রাস্তায় দেখেন। দেখা মাত্রই তিনি গাড়ি থেকে নেমে অ্যাম্বুলেন্সের বন্দোবস্ত করেন। আহতদের হাসপাতালে পাঠাবার সবরকম ব্যবস্থা করে তারপর তিনি অধিবেশনের উদ্দেশ্যে রওনা দেন।

উল্লেখ্য, শনিবার মন্ত্রী গুপ্তা এম.জি.এম হাসপাতালে উদ্বোধন করেন একটি বিশেষ চিকিৎসা বিভাগ। যেখানে এক্স-রে, আল্ট্রাসাউন্ড এবং সিটি-স্ক্যান সমস্তরকম পরিষেবা স্বল্পমূল্যে দেওয়া হবে। জানা গিয়েছে, এই পরিষেবা পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপে (পিপিপি মডেল) পরিচালিত হবে।

রক্তদান করছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী বান্না গুপ্তা
Rajasthan: কংগ্রেসের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব ক্রমশ বাড়ছে, রাশ আলগা হচ্ছে প্রশাসনের

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in