Remdesivir প্রয়োগের ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় নির্দেশিকাকে ভর্ৎসনা দিল্লি হাইকোর্টের

বিচারপতি প্রতিভা এমসিং কেন্দ্রের ভূমিকা নিয়ে সরাসরি আঙুল তুলে একথাই বলেন। গত কয়েকদিন ধরেই দেশজুড়ে রেমডিসিভির ঘাটতি দেখা দিয়েছে। তাই কেন্দ্র রেমডিসিভি ব্যবহারে নতুন নির্দেশিকা জারি করেছে।
Remdesivir প্রয়োগের ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় নির্দেশিকাকে ভর্ৎসনা দিল্লি হাইকোর্টের
ছবি প্রতীকী সংগৃহীত

আপনারা চান মানুষ মারা যাক! রেমডিসিভির প্রয়োগের ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় নির্দেশিকাকে এভাবেই ভর্ৎসনা করল দিল্লি হাইকোর্ট। বিচারপতি প্রতিভা এমসিং কেন্দ্রের ভূমিকা নিয়ে সরাসরি আঙুল তুলে একথাই বলেন। গত কয়েকদিন ধরেই দেশজুড়ে রেমডিসিভির ঘাটতি দেখা দিয়েছে। তাই কেন্দ্র রেমডিসিভি ব্যবহারে নতুন নির্দেশিকা জারি করেছে। কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গিয়ে এক আইনজীবী কোর্টের দ্বারস্থ হন। তার প্রেক্ষিতেই এবার আদালতের ভৎসর্নার মুখে কেন্দ্র।

রেমডিসিভির ব্যবহারের নিয়মে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক বলেছে, মাঝারি বা সঙ্কটজনক যে করোনা রোগী অক্সিজেন সাপোর্টে আছেন, তাঁরাই কেবল এই ইঞ্জেকশন পাবেন। কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধেই দিল্লি হাইকোর্টে মামলা করেন এক আইনজীবী।

বুধবার মামলার শুনানিতে বিচারপতি প্রতিভা এম সিং ককেন্দ্রের সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে বলেন, ঘাটতি কমাতে প্রোটোকলে পরিবর্তন আনা যাবে না। এটা সঠিক নয়। এর ফলে এখন চিকিৎসকরা রেমডিসিভির দিতে পারছেন না।

রেমডিসিভির প্রয়োগে কোনও পরিবর্তন আনা উচিত কিনা, তার জন্য আগামীদিনে মেডিক্যাল কমিটি গঠন করার চিন্তাভাবনাও করছে আদালত।

এদিকে দিল্লিতে রেমডিসিভির দেরিতে পৌঁছনো নিয়েও আদালত কেন্দ্রে সমালোচনা করে। কত রেমসিভির কেন্দ্র পাঠিয়েছে, তার উত্তরে কেন্দ্র জানিয়েছে, ৭২ হাজারের মধ্যে ৫২ হাজার ফাইল পাঠিয়েছে। আদালত জানিয়েছে, দিল্লিতে এত ধীরগতিতে বরাদ্দ প্রক্রিয়া চলবে না।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in