COVID-19: ২৪ ঘন্টায় দেশে আক্রান্ত ৪৩,৫০৯, সক্রিয় কেস বেড়ে ফের ৪ লাখের ওপরে, উদ্বেগ বাড়াচ্ছে কেরল
ফাইল ছবি

COVID-19: ২৪ ঘন্টায় দেশে আক্রান্ত ৪৩,৫০৯, সক্রিয় কেস বেড়ে ফের ৪ লাখের ওপরে, উদ্বেগ বাড়াচ্ছে কেরল

২৪ ঘন্টায় দেশে মারা গেছেন ৬৪০ জন। এর‌ ফলে দেশে কোভিডে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪ লক্ষ ২২ হাজার ৬৬২ জনের।

প্রায় একই জায়গায় রয়েছে দেশে দৈনিক করোনা সংক্রমণ। দৈনিক মৃত্যুও বেড়ে প্রায় সাড়ে ছ'শো ছুঁই ছুঁই। ২৪ ঘন্টায় অ‍্যক্টিভ কেস বেড়েছে প্রায় সাড়ে চার হাজার। এই নিয়ে টানা দু'দিন বাড়লো অ‍্যাক্টিভ কেস। দৈনিক সংক্রমণে দেশের মধ্যে শীর্ষে রয়েছে কেরল।

বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের প্রকাশিত পরিসংখ্যান অনুযায়ী, শেষ ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৪৩ হাজার ৫০৯ জন, গতকাল আক্রান্ত হয়েছিলেন ৪৩,৬৫৪ জন। আজকের পরিসংখ্যান নিয়ে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩ কোটি ১৫ লক্ষ ২৮ হাজার ১১৪।

২৪ ঘন্টায় দেশে মারা গেছেন ৬৪০ জন। এর‌ ফলে দেশে কোভিডে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪ লক্ষ ২২ হাজার ৬৬২ জনের।

এই মুহূর্তে দেশে মোট সক্রিয় কেস ৪ লক্ষ ৩ হাজার ৮৪০, যা গতকালের চেয়ে ৪,৪০৪ বেশি। একদিনে সুস্থ হয়েছেন ৩৮,৪৬৫ জন রোগী। মোট সুস্থ ৩ কোটি ৭ লক্ষ ১ হাজার ৬১২।

২৪ ঘন্টায় সবথেকে বেশি আক্রান্ত ধরা পড়েছে কেরলে, এখানের পরিস্থিতি বেশ উদ্বেগজনক। একদিনে সেখানে আক্রান্ত হয়েছেন ২২ হাজার ৫৬ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১৩১ জনের। দেশের মধ্যে সর্বাধিক সক্রিয় কেস এখানে, ১.৫০ লক্ষ। রাজ‍্যে সপ্তাহান্তে সম্পূর্ণ লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

মহারাষ্ট্রে ২৪ ঘন্টায় সেখানে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৬,৮৫৭ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২৮৬ জনের। রাজ‍্যে বর্তমানে সক্রিয় রোগী প্রায় ৮৬ হাজার। করোনার কারণে রাজ্যে মোট মৃত্যু হয়েছে ১ লক্ষ ৩২ হাজার ১৪৫ জনের।

তামিলনাড়ুতে একদিনে ১ হাজার ৭৫৬ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন এবং মৃত্যু হয়েছে ২৯ জনের। রাজ‍্যে সক্রিয় কেস ২১ হাজার।

এছাড়াও উত্তর-পূর্বের রাজ‍্যগুলির পরিস্থিতিও উদ্বেগজনক। মিজোরামে ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ১১০ জন। ওড়িশা, আসাম, মণিপুর ও মেঘালয়ে ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ১,৭০৩, ১,২৭৬, ১,০০৩ ও ৫৪১।

দেশে এখনও পর্যন্ত মোট টিকাকরণ হয়েছে ৪৫ কোটি ৭ লক্ষ ৬ হাজার ২৫৭ জনের। শেষ ২৪ ঘন্টায় টিকাকরণ হয়েছে ৪৩ লক্ষ ৯২ হাজার ৬৯৭ জনের, গতকাল হয়েছিল ৪০ লক্ষ।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in