COVID-19: ২৪ ঘন্টায় ৫১ লক্ষ টিকাকরণ, দৈনিক সংক্রমণও বাড়লো ৭.৪ শতাংশ

২৪ ঘন্টায় দেশে মারা গেছেন ৫১৮ জন, গতকাল এই সংখ্যাটা ছিল ৫৬০। এখনও পর্যন্ত দেশে কোভিডে মোট মৃত্যু হয়েছে ৪,১৩,৬০৯ জনের। এই মুহূর্তে দেশে মোট সক্রিয় কেস ৪,২২,৬৬০, যা গতকালের চেয়ে ১,৩৬৫ কম।
COVID-19: ২৪ ঘন্টায় ৫১ লক্ষ টিকাকরণ, দৈনিক সংক্রমণও বাড়লো ৭.৪ শতাংশ
ফাইল ছবি

গতকালের তুলনায় ৭.৪ শতাংশ সংক্রমণ বাড়লো আজ। তবে দৈনিক মৃত্যু সংখ‍্যা কমেছে। গত কয়েকদিন ধরেই দৈনিক সংক্রমণে শীর্ষে রয়েছে কেরল। পাশাপাশি মণিপুর, আসাম, ত্রিপুরা, মেঘালয়ের মতো‌ উত্তর-পূর্বের রাজ‍্যগুলিতেও সংক্রমণের হার উদ্বেগজনক।

রবিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের প্রকাশিত পরিসংখ্যান অনুযায়ী, শেষ ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৪১ হাজার ১৫৭ জন, গতকাল আক্রান্ত হয়েছিলেন ৩৮ হাজার মানুষ। আজকের পরিসংখ্যান নিয়ে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩ কোটি ১১ লক্ষ ৬ হাজার ৬৫।

২৪ ঘন্টায় দেশে মারা গেছেন ৫১৮ জন, গতকাল এই সংখ্যাটা ছিল ৫৬০। এখনও পর্যন্ত দেশে কোভিডে মোট মৃত্যু হয়েছে ৪ লক্ষ ১৩ হাজার ৬০৯ জনের। এই মুহূর্তে দেশে মোট সক্রিয় কেস ৪ লক্ষ ২২ হাজার ৬৬০, যা গতকালের চেয়ে ১,৩৬৫ কম। একদিনে সুস্থ হয়েছেন ৪২,০০৪ জন রোগী। মোট সুস্থ ৩ কোটি ২ লক্ষ ৬৯ হাজার ৭৯৬।

২৪ ঘন্টায় সবথেকে বেশি আক্রান্ত ধরা পড়েছে কেরলে। একদিনে সেখানে আক্রান্ত হয়েছেন ১৬ হাজার ১৪৮ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১১৪ জনের। দেশের মধ্যে সর্বাধিক সক্রিয় কেস এখানে, ১.২৫ লক্ষ।

মহারাষ্ট্রে দৈনিক সংক্রমণের গ্রাফ ফের ঊর্ধ্বমুখী। ২৪ ঘন্টায় সেখানে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৮ হাজার ১৭২ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১২৪ জনের। রাজ‍্যে বর্তমানে সক্রিয় রোগী ১.০৩ লক্ষ। করোনার কারণে রাজ্যে মোট মৃত্যু হয়েছে ১ লক্ষ ২৬ হাজার ৮৫১ জনের।

তামিলনাড়ুতে একদিনে ২ হাজার ২০৫ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন এবং মৃত্যু হয়েছে ৪৩ জনের। রাজ‍্যে সক্রিয় কেস ২৮ হাজার।

অন্ধ্রপ্রদেশে ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৬৭২ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১৮ জনের। এখানে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা প্রায় ২৫ হাজার।

ওড়িশা, আসাম মণিপুর ও মেঘালয়ে ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ২,১৮২, ১,৭২৭, ১,১৭১ ও ৫০৭।

দেশে এখনও পর্যন্ত মোট টিকাকরণ হয়েছে ৪০ কোটি ৪৯ লক্ষ ৩১ হাজার ৭১৫ জনের। শেষ ২৪ ঘন্টায় টিকাকরণ হয়েছে মাত্র ৫১ লক্ষ ১ হাজার ৫৬৭ জনের, গতকাল হয়েছিল ৪২.১২ লক্ষ।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in