Covid-19: ১৪ এপ্রিলের পর এই প্রথম সংক্রমণ ২ লক্ষের নীচে, কমলো মৃত্যু সংখ্যাও
মহেশতলা এলাকায় স্যানিটাইজেশানের কাজে রেড ভলান্টিয়ার্সছবি রেড ভলান্টিয়ার্স ফেসবুক পেজের সৌজন্যে

Covid-19: ১৪ এপ্রিলের পর এই প্রথম সংক্রমণ ২ লক্ষের নীচে, কমলো মৃত্যু সংখ্যাও

২৪ ঘন্টায় দেশে মারা গেছেন ৩ হাজার ৫১১ জন, গতকাল এই সংখ্যাটা ছিল ৪ হাজার ৪৫৪। এখনও পর্যন্ত দেশে কোভিডে মোট মৃত্যু হয়েছে ৩ লক্ষ ৭ হাজার ২৩১ জনের। এই মুহূর্তে দেশে মোট সক্রিয় কেস ২৫ লক্ষ ৮৬ হাজার ৭৮২

গত ১৪ এপ্রিলের পর থেকে এই প্রথম দেশে দৈনিক করোনা সংক্রমণ ২ লক্ষের নীচে নামলো। মৃত্যু সংখ্যাও এক ধাক্কায় কমলো অনেকটাই। যা অনেকটাই স্বস্তি দিয়েছে দেশবাসীকে। যদিও আগেই দেশে মোট মৃত্যুসংখ‍্যা তিন লক্ষ ছাড়িয়ে গেছে। করোনায় মৃত্যু সংখ্যায় আমেরিকা, ব্রাজিলের পর বিশ্বের মধ্যে তৃতীয় দেশ হিসেবে উঠে এসেছে ভারতের নাম।

মঙ্গলবার সকালে প্রকাশিত কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, শেষ ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ১ লক্ষ ৯৬ হাজার ৪২৭ জন, গতকাল এই সংখ্যাটা ছিল প্রায় ২.২২ লক্ষ। আজকের পরিসংখ্যান নিয়ে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২ কোটি ৬৯ লক্ষ ৪৮ হাজার ৮৭৪।

২৪ ঘন্টায় দেশে মারা গেছেন ৩ হাজার ৫১১ জন, গতকাল এই সংখ্যাটা ছিল ৪ হাজার ৪৫৪। এখনও পর্যন্ত দেশে কোভিডে মোট মৃত্যু হয়েছে ৩ লক্ষ ৭ হাজার ২৩১ জনের। এই মুহূর্তে দেশে মোট সক্রিয় কেস ২৫ লক্ষ ৮৬ হাজার ৭৮২, যা গতকালের তুলনায় ১,৩৩,৯৩৪ কম। একদিনে সুস্থ হয়েছেন ৩.২৬ লক্ষ রোগী। মোট সুস্থ ২ কোটি ৪০ লক্ষ ৫৪ হাজার ৮৬১। শেষ ২৪ ঘন্টায় পরীক্ষা বেড়েছে দেশে, ২০ লক্ষ ৫৮ হাজার ১১২, গতকাল হয়েছিল ১৯ লক্ষ ২৮ হাজার ১২৭।

২৪ ঘন্টায় সবথেকে বেশি আক্রান্ত ধরা পড়েছে তামিলনাড়ুতে। একদিনে সেখানে ৩৪ হাজার ৮৬৭ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন এবং মৃত্যু হয়েছে ৪০৪ জনের। রাজ‍্যে সক্রিয় কেস ৩.০১ লক্ষ।

এরপর রয়েছে কর্ণাটক। ২৪ ঘন্টায় সেখানে আক্রান্ত হয়েছেন ২৫ হাজার ৩১১ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৫২৯ জনের। দেশের মধ্যে সর্বাধিক সক্রিয় রোগী এখানেই, ৪.৪০ লক্ষ। রাজ‍্যে লকডাউনের মেয়াদ বাড়িয়েছে ইয়েদুরাপ্পার সরকার।

মহারাষ্ট্রে শেষ কয়েকদিনে দৈনিক সংক্রমণ কমার পাশাপাশি মৃত্যুর সংখ্যাও এদিন কমেছে। ২৪ ঘন্টায় সেখানে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২২ হাজার ১২২ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৫৯২ জনের। রাজ‍্যে এই মুহূর্তে সক্রিয় কেস ৩.৩০ লক্ষ। করোনার কারণে রাজ্যে মোট মৃত্যু হয়েছে ৮৯ হাজার ২১২ জনের।

কেরলে ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ হাজার ৮২১ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১৯৬ জনের। করোনাকালে রাজ‍্যে সর্বাধিক দৈনিক মৃত্যু এটা। সেখানে সক্রিয় কেসের সংখ্যা ২.৫৯ লক্ষ।

এই চারটি রাজ‍্য ছাড়াও অন্ধ্রপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িশা, রাজস্থান এবং পাঞ্জাব - এই পাঁচটি রাজ্যের পরিস্থিতিও অত‍্যন্ত উদ্বেগজনক। এই পাঁচটি রাজ্যে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা যথাক্রমে ১২,৯৯৪, ১৭,৮৮৩, ১১,০৫৯, ৪,৪১৪ এবং ৪,৪৮১।

২৪ ঘন্টায় দিল্লি, পাঞ্জাব, উত্তরপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ ও কেরলে কোভিডে প্রাণ হারিয়েছেন যথাক্রমে ২০৭, ১৮৭, ১৫৩, ১৫৩ ও ১৯৬ জন।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in