‘ব্ল্যাক ফাঙ্গাস’ও মহামারী - ঘোষণা কেন্দ্রের

করোনা রোগীর দেহে কোমরবিডিটি এবং মৃত্যুর আশঙ্কা বাড়িয়ে দিচ্ছে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস
‘ব্ল্যাক ফাঙ্গাস’ও মহামারী - ঘোষণা কেন্দ্রের
ছবি - সংগৃহীত

দেশজুড়ে চোখ রাঙাচ্ছে ‘মিউকরমাইকোসিস’ বা ‘ব্ল্যাক ফাঙ্গাস’। কালো ছত্রাকের হানায় বেশ কয়েকটি রাজ্যে কেন্দ্রের উদ্বেগ বাড়িয়ে বহু মানুষের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক রাজ্যগুলিকে অ্যাডভাইসরি জারি করল। রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসকে মহামারী আইনে নথিভুক্ত করার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র।

উল্লেখ্য, ব্ল্যাক ফাঙ্গাস নামক এই রোগকে বৈজ্ঞানিক ভাষায় মিউকরমায়োসিস বলা হয়। করোনা অতিমারির মধ্যেই মহারাষ্ট্র, রাজস্থান, বাংলা-সহ একাধিক রাজ্যে করোনা রোগীর দেহে প্রভাব ফেলছে এই ছত্রাকের সংক্রমণ। রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে চিঠিতে কেন্দ্র জানিয়েছে, করোনা রোগীর দেহে কোমরবিডিটি এবং মৃত্যুর আশঙ্কা বাড়িয়ে দিচ্ছে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস।

জানা যাচ্ছে, রাজস্থানে এই মুহূর্তে ১০০ জন ব্ল্যাক ফাঙ্গাস রোগীর খোঁজ মিলেছে। তাঁদের চিকিৎসার জন্য জয়পুরে এসএমএস হাসপাতালে পৃথক ওয়ার্ড তৈরি করা হয়েছে। মহারাষ্ট্রেও ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের সংক্রমণে ইতিমধ্যেই ৯০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে দেড় হাজার। পাশাপাশি এবার আতঙ্ক বাড়াল পশ্চিমবঙ্গেও। রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, এখনও পর্যন্ত এ-রাজ্যে ৫ জনের শরীরে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে।

চিঠিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের যুগ্মসচিব লব আগরওয়াল জানিয়েছেন - এই ছত্রাকের চিকিৎসার জন্য চক্ষু বিশারদ, ইএনটি বিশেষজ্ঞ, জেনারেল সার্জন, স্নায়ুরোগ বিশেষজ্ঞ, দন্ত চিকিৎসক-সহ আরও অনেক বিশিষ্ট চিকিৎসকদের সহায়তা প্রয়োজন। ‘মিউকরমাইকোসিস’কে মহামারী রোগ আইনে নথিভুক্ত করে সরকারি মেডিক্যাল কলেজ, বেসরকারি হাসপাতালকে কেন্দ্রের গাইডলাইন মেনে স্ক্রিনিং, চিকিৎসা এবং রোগ মোকাবিলার ব্যবস্থা নিতে হবে। স্বাস্থ্যমন্ত্রক এবং আইসিএমআরের গাইডলাইন মেনে চিকিৎসা পদ্ধতি চলবে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in