Euro Cup: ১১ দেশেই কিছু দর্শকদের স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখার অনুমতি

গ্লাসগো থেকে সেন্ট পিটার্সবার্গ, সেভিয়া থেকে বুখারেস্ট - কিছু দর্শকদের স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখার অনুমতি দিয়েছে। করোনা সম্পর্কিত বিধিনিষেধে নজর দিয়ে ঠিক করা হচ্ছে কোন স্টেডিয়ামে কত দর্শক প্রবেশ করবে
Euro Cup: ১১ দেশেই কিছু দর্শকদের স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখার অনুমতি
রোমছবি উয়েফা ইউরো ট্যুইটার হ্যান্ডেলের সৌজন্যে

আর মাত্র কয়েক ঘন্টার অপেক্ষা। তারপরেই ইউরোপে 'মিনি বিশ্বকাপ'। করোনা মহামারীর কারণে ২০২০ সালের ইউরো কাপ অনুষ্ঠিত হচ্ছে ২০২১-এ। প্রথম বারের জন্য ইউরোপের ১১ টি দেশের ১১ টি স্টেডিয়াম জুড়ে ইউরোর আসর বসছে এবং স্টেডিয়ামগুলিতে দর্শক প্রবেশেরও অনুমতি রয়েছে।

গ্লাসগো থেকে সেন্ট পিটার্সবার্গ, সেভিয়া থেকে বুখারেস্ট - কমপক্ষে কিছু দর্শকদের স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখার অনুমতি দিয়েছে। তবে করোনা সম্পর্কিত বিধিনিষেধের উপর নজর দিয়ে ঠিক করা হচ্ছে কোন স্টেডিয়ামে কতজন দর্শক প্রবেশের অনুমতি ঘটবে। শুক্রবার রোমে পর্দা উঠছে 'ইউরো ২০২০'-এর।

ইউরোপের পূর্বে অবস্থিত বুদাপেস্ট, বাকু এবং সেন্ট পিটার্সবার্গে মোট আসনের শতকরা ৫০ ভাগ থেকে ১০০ ভাগ পূর্ণ করার অনুমতি দেওয়া হবে। হাঙ্গেরীর পুসকাস এরেনাতে স্বাগতিক দেশের বিপক্ষে রোনাল্ডো ও কিলিয়ান এমবাপের খেলা প্রায় ৬৮,০০০ দর্শক উপভোগ করতে পারেন বলে অনুমান করা হচ্ছে!

অন্যদিকে বাকু এবং সেন্ট পিটার্সবার্গ অর্ধেক আসন ভর্তি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অর্থাৎ বাকুতে প্রায় ৩৫,০০০ দর্শক এবং পিটার্সবার্গে প্রায় ৩০,০০০ দর্শক স্টেডিয়ামে বসে ইউরো উপভোগ করতে পারবেন।

বাকু, বুদাপেস্ট এবং সেন্ট পিটার্সবার্গ ছাড়া অন্যান্য স্টেডিয়ামগুলিতে মোট আসনের শতকরা ২৫ শতাংশ দর্শক উপস্থিত থাকার অনুমতি পাবে। তবে মিউনিখের আলিয়াঞ্জ এরিনাতে থাকবে সর্বনিম্ন ২২ শতাংশ দর্শক। কোনো স্টেডিয়ামে সর্বোচ্চ ৪৫ শতাংশ দর্শক প্রবেশের অনুমতিও মিলতে পারে।

উয়েফা ইভেন্টের সিইও মার্টিন কাল্লেন বলেন, "একটি টুর্নামেন্টে প্রথম অগ্রাধিকার, দ্বিতীয় অগ্রাধিকার এবং তৃতীয় অগ্রাধিকার সবসময় ফ্যানেদের সুরক্ষাই হয়।" তাই দর্শক প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হলেও সকলকে সচেতনতা মেনে চলতে বলেন তিনি। কাল্লেনের কথায়, ফ্যান ছাড়া ফুটবল একরকম নয়, তাই তাদের ফিরিয়ে আনা প্রয়োজন।"

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in