Shivkumar Sharma: ভেঙে গেল শিব-হরি জুটি, সন্তুরের জাদুকর শিবকুমার শর্মা প্রয়াত

মঙ্গলবার মুম্বাইয়ে নিজের বাড়িতেই সকালে প্রয়াণ ঘটে সন্তুর-বাদকের। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর। তিনি দীর্ঘদিন কিডনির অসুখে ভুগছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে সঙ্গীত জগতে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।
Shivkumar Sharma: ভেঙে গেল শিব-হরি জুটি, সন্তুরের জাদুকর শিবকুমার শর্মা প্রয়াত
প্রয়াত শিবকুমার শর্মাফাইল ছবি সংগৃহীত

অনন্ত সুরের দেশে চলে গেলেন সঙ্গীতজ্ঞ শিবপ্রসাদ শর্মা। তাঁর মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গেই শেষ হয়ে গেল বিখ্যাত শিব-হরি জুটি। মঙ্গলবার মুম্বাইয়ে নিজের বাড়িতেই সকালে প্রয়াণ ঘটে সন্তুর-বাদকের। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর। দীর্ঘদিন তিনি ভুগছিলেন কিডনির অসুখে। তাঁর মৃত্যুতে সঙ্গীত জগতে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। শোকপ্রকাশ করেছেন সঙ্গীত জগতের বিশিষ্টরা।

বিগত প্রায় পাঁচ দশক ধরে ভারতীয় সঙ্গীত জগতকে সমৃদ্ধ করেছেন তিনি। শিবপ্রসাদ এর সন্তুর, আর হরিপ্রসাদ চৌরাসিয়ার বাঁশি; এই যুগল ভারতীয় সঙ্গীতে কিছু অনবদ্য কম্পোজিশন উপহার দিয়েছেন। যা আজও শ্রোতাদের মনে অমলিন। লঘু সঙ্গীতের যন্ত্র সন্তুরকে শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের জগতে প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন শিবকুমারই।

১৯৩৮ সালে জম্মুর সম্ভ্রান্ত সঙ্গীত পরিবারে জন্ম শিবপ্রসাদ শর্মার। বাবা উমা দত্ত শর্মা ছিলেন সঙ্গীতপ্রেমী মানুষ, তিনিই শিবপ্রসাদের সঙ্গীত শিক্ষার প্রথম গুরু। তাঁর উৎসাহে পুত্র শিব ৫ বছর বয়সে হাতে তুলে নেন তবলা। খুব অল্প দিনেই শিব তবলায় পারদর্শিতা অর্জন করেন। পরে ১৩ বছর বয়সে উমা দত্ত ছেলের হাতে তুলে দেন সন্তুর। প্রথম থেকেই শিবের মধ্যে সম্ভাবনা দেখতে পেয়েছিলেন তাঁর বাবা। সন্তুর হাতে পেয়ে আর ঘুরে তাকাতে হয়নি শিবপ্রসাদকে। অল্পদিনেই সন্তুরে পটু হয়ে ওঠেন তিনি। সুরের ডালি নিয়ে পৌঁছে যান মহানগরী মুম্বাই। সেখানে আলাপ হয়, বাঁশি বাদক হরিপ্রসাদ চৌরাসিয়া, সেতার বাদক রবিশঙ্কর প্রমুখ পণ্ডিতদের সাথে। একসাথে অনেক সুর বাঁধেন তাঁরা।

সেই সময় প্রচলিত শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের বাদ্যযন্ত্রগুলির মধ্যে সন্তুরের তেমন চল ছিল না। সন্তুরকে তেমন গুরুত্বপূর্ণ মনে করতেন না গোঁড়া সঙ্গীতজ্ঞরা। তা সত্ত্বেও বাবার আদর্শ ও নিজের অধ্যাবসায়ে সন্তুরকেই আপন করে নেন শিবপ্রসাদ। আজ ভারতীয় শাস্ত্রীয় সঙ্গীত ঘরানার একটি অন্যতম উল্লেখযোগ্য বাদ্যযন্ত্র হল সন্তুর। শিবপ্রসাদ ছিলেন সন্তুরের অগ্রগামী।

১৯৫৫ সালে ভি শান্তারাম নির্মিত ছবি, ‘ঝনক ঝনক পায়েল বাজে’তে প্রথম আত্মপ্রকাশ সন্তুরবাদক শিবপ্রসাদ শর্মার। তারপর ১৯৬০ সালে প্রথম একক এ্যালবাম রেকর্ড করেন তিনি।

১৯৬৭ সালে প্রথম বারের জন্য জুটি বাঁধেন শিবপ্রসাদ ও হরিপ্রসাদ। তাঁদের কম্পোজ করা প্রথম পিসটি হল ‘Call of the Valley বা তীরের ডাক’। এরপর একে একে এই জুটি, ‘শিব-হরি’ নামে অসংখ্য মনোমুগ্ধকর মিউজিক্যাল পিস আমাদের উপহার দিয়েছেন। সিলসিলা (১৯৮১), ফাসলে (১৯৮১), বিজয় (১৯৮৮), চাঁদনী (১৯৮৯), পরম্পরা (১৯৯৩), ডর (১৯৯৩) ইত্যাদি বিখ্যাত বলিউড ছবিতে সঙ্গীত পরিচালনার কাজ করেছেন ‘শিব-হরি’ জুটি।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.