FIPRESCI: সর্বকালের সেরা ভারতীয় চলচ্চিত্রের তালিকায় শীর্ষে সত্যজিৎ রায়ের পথের পাঁচালি

এই তালিকায় দ্বিতীয় স্থান পেয়েছে ঋত্বিক ঘটকের ১৯৬০ সালের চলচ্চিত্র 'মেঘে ঢাকা তারা'। তৃতীয় স্থানে আছে ১৯৬৯ সালে নির্মিত মৃণাল সেনের 'ভুবন সোম'।
মৃনাল সেন, সত্যজিৎ রায় এবং ঋত্বিক ঘটক
মৃনাল সেন, সত্যজিৎ রায় এবং ঋত্বিক ঘটকফাইল ছবি, গ্রাফিক্স রিয়া সরকার

FIPRESCI-ইন্ডিয়া (দ্য ইন্ডিয়ান চ্যাপ্টার অফ ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অফ ফিল্ম ক্রিটিকস, FIPRESCI) পরিচালিত একটি সমীক্ষায় সত্যজিৎ রায়ের ১৯৫৫ সালের ক্লাসিক 'পথের পাঁচালী'কে সর্বকালের সেরা ভারতীয় চলচ্চিত্র হিসাবে মনোনীত করা হয়েছে।

এই তালিকায় দ্বিতীয় স্থান পেয়েছে ঋত্বিক ঘটকের ১৯৬০ সালের চলচ্চিত্র 'মেঘে ঢাকা তারা'। তৃতীয় স্থানে আছে ১৯৬৯ সালে নির্মিত মৃণাল সেনের 'ভুবন সোম'।

FIPRESCI 'সর্বকালের সেরা দশ ভারতীয় চলচ্চিত্র'-এর একটি তালিকা বের করেছে, যা ভারতীয় চলচ্চিত্রের ইতিহাসে বিভিন্ন ভাষায় শীর্ষ ১০টি চলচ্চিত্রের তালিকা করেছে।

সত্যজিৎ রায়ের ১৯৫৫ সালের চলচ্চিত্র 'পথের পাঁচালী' বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাংলা উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত। ১৯২৯ সালে প্রকাশিত এই উপন্যাসের ভিত্তিতে তৈরি করা এই চলচ্চিত্রের মাধ্যমেই তাঁর পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ।

এটি ছিল অপু ট্রিলজির প্রথম ছবি। এখন পর্যন্ত নির্মিত সবচেয়ে আইকনিক চলচ্চিত্রগুলির মধ্যে একটি হিসাবে বিবেচিত 'পথের পাঁচালী'। যার নায়ক অপু এবং তার বড় বোন দুর্গা। এই চলচ্চিত্রে দরিদ্র এই পরিবারে বেড়ে ওঠা দুই ভাইবোনের শৈশবকালের কঠোর গ্রাম জীবনের কথা চিত্রিত করে। এর পরে ছিল 'অপরাজিত' (১৯৫৬) এবং 'অপুর সংসার' (১৯৫৯)।

আদুর গোপালকৃষ্ণনের ১৯৮১ সালের মালয়ালম ছবি 'এলিপ্পাথায়ম', ১৯৭৭ সালের গিরিশ কাসারভাল্লির ছবি 'ঘাটশ্রাদ্ধ' এবং এমএস সাথ্যুর 'গরম হাওয়া' যথাক্রমে চার, পাঁচ এবং ছয় নম্বরে জায়গা করে নিয়েছে।

এই তালিকায় সপ্তম স্থানে আছে সত্যজিৎ রায়ের ১৯৬৪ সালের চলচ্চিত্র 'চারুলতা'।

অষ্টম স্থানে রয়েছে শ্যাম বেনেগালের ১৯৭৪ সালের ছবি 'অঙ্কুর', যেখানে গুরু দত্তের 'পিয়াসা' (১৯৫৪) এবং রমেশ সিপ্পির 'শোলে' নবম এবং দশম স্থান পেয়েছে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in