ঐতিহ্যের আঁতে ঘা, পরিষেবা লাটে...

ঐতিহ্যের আঁতে ঘা, পরিষেবা লাটে...
ফাইল ছবি সংগৃহীত

কিছুটা লজ্জাজনক ভাবেই প্রস্থান ঘটলো রাজ্যের দমকল মন্ত্রীর। গুঞ্জন অনুসারে বুধবারই লজ্জা সহযোগেই কলকাতার মেয়র পদ থেকেও ইস্তফা দিতে বাধ্য হচ্ছেন তিনি।

রাজনীতিতে উত্থান-পতন, চড়াই-উৎরাই থাকেই। দক্ষ রাজনীতিকরা দক্ষতার সঙ্গে তোয়ালে ঢেকে ঢেকে পিছলে পিছলে ওপরে ওঠার পথ মসৃণ করেন। রাজনীতির সাপলুডোর খেলায় মই চড়ে চড়ে আজ যিনি শীর্ষে, বোর্ডের একেবারে নীচের ঘরটায় তাঁকে নামিয়ে দিতে কিন্তু এক মুহূর্তও সময় লাগে না।

ঘটনাগুলো খুব একটা অপ্রত্যাশিত নয়। এর আগেও অন্তত দু’বার তিনি পদত্যাগ করতে গেছিলেন। সে দু’বার তাঁর পদত্যাগপত্র গৃহীত না হলেও এবারে আর পতন রোধ করা গেল না। এক লহমায় – মন্ত্রীত্ব, সরকারি গাড়ি, জেড ক্যাটাগরি নিরাপত্তা এবং আজ পদত্যাগ করলে মেয়র পদও হারিয়ে ফেললেন তিনি।

অবশ্য এই ঘটনা পরম্পরার অন্য একটা দিকও আছে। রাজ্যের দমকল মন্ত্রীর পদত্যাগ এবং যদি তিনি আজ মেয়র পদ থেকে পদত্যাগ করেন, সেক্ষেত্রে নিজেদের অজান্তেই কিন্তু ঢোঁক গিলতে বাধ্য হল রাজ্য সরকার তথা তৃণমূল কংগ্রেস। দমকল মন্ত্রী বা মেয়র যে অযোগ্য, অদক্ষ তা তাঁর পদত্যাগপত্র গ্রহণ করে রাজ্যবাসির চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দেবার পাশাপাশি নিজেদের পরাজয়ও স্বীকার করে নিলো। এবং সেই অদক্ষতা, অযোগ্যতা ঢাকবার জন্য নজিরবিহীন ভাবে গতকাল সারা সন্ধ্যে ধরে একজন ব্যক্তি মানুষের ব্যক্তিগত জীবনের রসালো আলোচনাতেও পিছপা হল না কেউ কেউ।

অবক্ষয় যতটা না চোখে দেখা যায় তার চেয়ে বেশি অনুভব করা যায়, উপলব্ধি করা যায়। বাঙ্গালীর সাংস্কৃতিক অবক্ষয়ের এর চেয়ে বড় নিদর্শন আর কিছু হতে পারে কীনা ভাবার জন্য বোধহয় ঘণ্টাখানেক ব্যয় করা যেতেও পারে।

আসলে সত্যিটা সত্যিই। রাজ্য জুড়ে যতই বিজ্ঞাপনের ফোয়ারা ছুটুক, কলকাতা কর্পোরেশনের কাজকর্ম যে বেশ কিছুদিন ধরেই ঠিকঠাক চলছিলো না বা দমকল দপ্তর যে ঠিকভাবে চলছে না, তা বোঝার জন্য আবহাওয়াবিদ হবার প্রয়োজন নেই। বিরোধীরা কলকাতা কর্পোরেশনের কাজ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগ জানাচ্ছেন। দমকল নিয়ে বিরোধীদের সুনির্দিষ্ট অভিযোগ আছে। মঙ্গলবার মন্ত্রীর পদত্যাগপত্র গ্রহণ করে রাজ্য সরকার বিরোধীদের সেই অভিযোগকেই মান্যতা দিলো মাত্র। আর, নারদ নারদ বলে পেছন থেকে কারা কলকাঠি নাড়লেন তা নিয়ে এখন মাথা ঘামিয়ে লাভ নেই। তার উত্তর তো দেবে ভবিষ্যৎ...

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.