কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের অরাজকতা রুখতে বিকল্প সংযুক্ত মোর্চা, বার্তা বাম ঘনিষ্ঠ তারকাদের

এদিন উপস্থিত ছিলেন সিনেমা ও নাট্যজগতের বিমল চক্রবর্তী, সীমা মুখোপাধ্যায়, দেবপ্রতিম দাশগুপ্ত, সব্যসাচী চক্রবর্তী, সুপ্রিয় দত্ত, মানসী সিংহ, চন্দন সেন, দেবজ্যোতি মিশ্র, বাদশা মৈত্র সহ আরও অনেকে
কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের অরাজকতা রুখতে বিকল্প সংযুক্ত মোর্চা, বার্তা বাম ঘনিষ্ঠ তারকাদের
কলকাতা প্রেস ক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন ফাইল- সংগৃহীত

একদিকে কেন্দ্রের ফ্যাসিবাদ, অন্যদিকে স্বৈরাচারী রাজ্য সরকার। এই দুই থেকে মুক্তির জন্য বাংলা ও বাংলার মানুষের চাই এমন সরকার, যে সাধারণ মানুষের জীবন ও জীবিকার ব্যবস্থা করার মধ্য দিয়ে উন্নয়নের চেষ্টা করবে। যে সরকার একটা সুস্থ, সামাজিক পরিবেশ রাজ্যবাসীকে ফিরিয়ে দিতে পারবে। আর এসবের জন্য উপযুক্ত সরকার গড়তে পারে একমাত্র বাম গণতান্ত্রিক ধর্মনিরপেক্ষ শক্তি।

এমনই সুর শোনা গেল টালিগঞ্জের দুই পরিচালক অনীক দত্ত এবং কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়ের গলায়। গতকাল প্রেস ক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে সংযুক্ত মোর্চা প্রাথীদের পক্ষে প্রচারে দেখা গেল বাংলা সিনেমা ও নাট্যজগতের অনেক মুখকেই। মন্দাক্রান্তা সেন সংযুক্ত মোর্চার নির্বাচনী ইস্তাহার স্বরচিত কবিতার আকারে পড়ে শোনান। নাট্যকার চন্দন সেনের কথায়, সংস্কৃতি জগতের মানুষদের রাজনীতিতে আসুন। ক্ষতি নেই। একটা সময়ে অনিল চট্টোপাধ্যায়, অনুপ কুমার, বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়ও নির্বাচনে দাঁড়িয়েছেন। বিজেপি এবং তৃণমূল টলিজগতের এমন অনেককেই প্রার্থী করেছেন, যারা এই প্রথম রাজনীতিতে পা রেখেছেন। তাঁরা স্বাভাবিকভাবেই নিশানায় ছিলেন এদিন।

চন্দন সেনের কটাক্ষ, যে সেলিব্রিটিরা নির্বাচনের অজুহাতে ভোটে দাঁড়াচ্ছেন, তাঁদের কোনও রাজনৈতিক বা সমাজ সচেতনতার পরিচয় কয়েক মাস আগেও জানা ছিল না। শ্রীলেখা মিত্রের কথায়, যাঁরা রাজনীতিতে যান কবুল করতে চাইছেন, তাঁরা বোধহয় জানেন না, মানুষের এখন শুধু সেবা নয়, পরিষেবার বেশি দরকার। দরকার চাকরির, সরকারি দল নয়। এই রাজ্যের শিক্ষিত ছেলেমেয়েরা এখান থেকে পালিয়ে যাচ্ছে, কিচ্ছু করার নেই বলে!”

টালিগঞ্জের প্রার্থী দেবদূত ঘোষের কটাক্ষ, দুয়ারে দুয়ারে নয়, আমরা ঘরে ঘরে যাচ্ছি, ভালোই সাড়া পাচ্ছি। এদিন উপস্থিত ছিলেন সিনেমা ও নাট্যজগতের বিমল চক্রবর্তী, সীমা মুখোপাধ্যায়, দেবপ্রতিম দাশগুপ্ত, সব্যসাচী চক্রবর্তী, সুপ্রিয় দত্ত, মানসী সিংহ, চন্দন সেন, দেবজ্যোতি মিশ্র, বাদশা মৈত্র। প্রচারপত্রে নাম ছি তরুণ মজুমদার, ওয়াসিম কাপুর, পবিত্র সরকার, পরান বন্দ্যোপাধ্যায়, রাহুল অরুণোদয় বন্দ্যোপাধ্যায়ের। জানা গিয়েছে, অন্যত্র প্রচারে ব্যস্ত থাকায় তাঁরা এদিন আসতে পারেননি।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in