“মানুষ তৃণমূলকে জিতিয়ে খাল কেটে কুমির এনেছিলেন, আর বিজেপি হচ্ছে বড় হাঙ্গর” - হান্নান মোল্লা

হান্নান বলেন, দিদি ১০ বছর ধরে মিথ্যা কথা বলে যাচ্ছেন। চারবার বাজপেয়ির মন্ত্রিসভায় মন্ত্রী হয়েছেন। আজ বিজেপির সঙ্গে লড়াইয়ের কথা বললে মানুষ বিশ্বাস করবেন?
“মানুষ তৃণমূলকে জিতিয়ে খাল কেটে কুমির এনেছিলেন, আর বিজেপি হচ্ছে বড় হাঙ্গর” - হান্নান মোল্লা
হান্নান মোল্লাফাইল ছবি- সংগৃহীত

তৃণমূল কুমির আর বিজেপি হাঙ্গর - একসঙ্গে বাংলার মানুষকে ধোঁকা দিচ্ছে। রায়নায় এভাবেই কেন্দ্র ও রাজ্যের শাসকদলকে বিঁধলেন কৃষক আন্দোলনের সর্বভারতীয় নেতা হান্নান মোল্লা। প্রসঙ্গত, সোমবার বর্ধমানের সাই কমপ্লেক্সে সভা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। হান্নান বলেন, মোদি এবং দিদি দুজনেই মিথ্যে বলছেন। তাঁদের মধ্যে মিথ্যা কথা বলা নিয়ে প্রতিযোগিতা চলছে। রাজ্যের মানুষ তৃণমূলকে জিতিয়ে খাল কেটে কুমির এনেছিলেন। আর বিজেপি হচ্ছে বড় হাঙ্গর। মোদি জানেন কৃষকরা শুধু অন্নদাতা নন, ভোটদাতাও। তাঁদের পেটে লাথি মারলে তাঁরা কেউই বিজেপিকে ছেড়ে কথা বলবেন না। একমাত্র রাজ্যের কৃষকরা বিজেপিকে হারাতে পারলেই কৃষকদের দাবি মানবে মোদি সরকার।

কৃষক নেতার অভিযোগ, মোদি সরকার গোটা দেশের কৃষকদের সঙ্গে বেইমানি করেছে। ফসলের দেড়গুণ দাম দেবেন বলে মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। মিথ্যা কথা বলা মোদির অভ্যাস। বর্ধমানে এসেও অনেক মিথ্যা কথা বলে গিয়েছেন। কিন্তু ওর কথা শুনলে কৃষকদের ডুবতে হবে। তিনটি কৃষক বিরোধী আইনের বিরুদ্ধে লড়তে গিয়ে ৩৫০ জন কৃষক মারা গিয়েছেন। বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর সংবিধান আক্রান্ত হয়েছে। মানুষের কথা বলার অধিকার কেড়ে নিতে চাইছে বিজেপি।

হান্নানের বক্তব্য, কে সত্যি বলছেন আর কে মিথ্যে, তাও বুঝতে হবে। মন কি বাত নয়, মানুষ চায় কাম কি বাত। মোদি-অমিত শাহ মানুষকে ঠকাচ্ছেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে হান্নান বলেন, দিদি ১০ বছর ধরে মিথ্যা কথা বলে যাচ্ছেন। চারবার বাজপেয়ির মন্ত্রিসভায় মন্ত্রী হয়েছেন। আজ বিজেপির সঙ্গে লড়াইয়ের কথা বললে মানুষ বিশ্বাস করবেন?

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in