রাশিয়ার স্তালিনগ্রাদ বিশ্ববিখ্যাত দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের অন্যতম রণক্ষেত্র হিসেবে। আজ সেই স্তালিনগ্রাদ (এখন ভলগোগ্রাদ) শহরে ফুটবল বিশ্বকাপের স্নায়ুযুদ্ধে টিউনিশিয়াকে ২-১ গোলে পরাস্ত করে ইংল্যান্ড বিশ্বজয়ের স্বপ্ন দেখছে। তারকা স্ট্রাইকার হ্যারি কেন্-এর দুই গোলের উপর ভর করে এই জয় ইংল্যান্ড শিবিরকে আত্মবিশ্বাসে বলীয়ান করবে, যা তাদের তরুণ দলের খুবই প্রয়োজন। অবশ্য ইংল্যান্ডের জন্য এই খেলার বৃত্তান্ত অনেকটাই প্রত্যেক বিশ্বকাপের সূচনাপর্বের মতো অনেক খাটাখাটনি করে ড্র-এর হতে পারতো, যদি না অতিরিক্ত সময়ে কর্নারের বল থেকে কেন্ হেড করে বল জালে না ঢোকাতে পারতেন।

প্রথম কুড়ি মিনিট দুর্ধর্ষ ফুটবল খেলেও ইংল্যান্ড একটিমাত্র গোল করে, ও গোল করবার অনেকগুলি সুযোগ নষ্ট করে। তার কিছুটা কৃতিত্ব যায় টিউনিশিয়ার গোলরক্ষক মুয়েজ হাসেনকে। ইংল্যান্ড যে কর্নারটি থেকে প্রথম গোলটি করে সেটিও হাসেন দুর্ধর্ষভাবে ম্যাগুআয়ারের হেডার বাঁচানোর পর কেন্ লুজ বলটি জালে পুড়ে দেন। তবে সেরকমই এক সুযোগ থেকে টীমকে রক্ষা করতে গিয়ে হাসেনকে কাঁধে চোট পেয়ে খেলা থেকে বেরিয়ে যেতে হয়।

৩৫ মিনিটের মাথায় টিউনিশিয়া একটি পেনাল্টি পায়, ইংল্যান্ড রক্ষক কাইল ওয়াকারের ফাউলের জন্য। সেই পেনাল্টি থেকে ফেরজানী সাসি সমতা ফেরান ও এরপর থেকে টিউনিশিয়া কিছু ভালো পাস্ এবং বল নিয়ে স্কিলের পরিচয় দিয়ে ইংরেজদের টক্কর দেওয়ার চেষ্টা করে। তবে দ্বিতীয়ার্ধে খেলাটির মাত্রা অনেক স্থিতিশীল হয়ে পড়ে। টিউনিশিয়া ড্র রক্ষা করবার মানসিকতা নিয়ে খেলতে শুরু করে ও ইংল্যান্ড গোল করবার পরিষ্কার সুযোগ তৈরী করতে ব্যর্থ হয়। ৬৮ মিনিটে তরুণ ফরোয়ার্ড মার্কাস র্যাশফোর্ড পরিবর্ত হিসেবে মাঠে নাম্বার পর খেলার গতি বাড়ে ও ইংল্যান্ড গোল করবার সুযোগ তৈরী করতে থাকে।

টিউনিশিয়ার রক্ষণ সব আক্রমণ ভোঁতা করতে সক্ষম হলেও শেষ মুহূর্তে কর্নার থেকে গোল খেয়ে তারা আশাহত হয়। তবে সমস্ত আফ্রিকান দলগুলির মধ্যে টিউনিশিয়ার প্রদর্শন অন্যতম হওয়ায় তারা এখনও বিশ্বকাপের পরবর্তী পর্বে যাওয়ার আশা রাখতে পারে। তবে আজকের পরাজয়ের পর বেলজিয়ামের সঙ্গে মোকাবিলা তাদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্ববাহী।

আর ইংল্যান্ড চাইবে স্তালিনগ্রাদের জয় যেমন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছিল, সেরকম তাদের এই জয় যেন তাদের তরুণ দলকে আত্মবিশ্বাস দেয় ও ১৯৬৬ সালের পর দ্বিতীয়বার বিশ্বজয়ের পথে অনুপ্রাণিত করে।

জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন