৯/১১-র ভয়ঙ্করতম নাশকতার আজ ১৯ তম বর্ষপূর্তি। বিশ্বের ভয়াবহ নাশকতামূলক ঘটনার শীর্ষে অবশ্যই রাখা যেতে পারে ২০০১-এর ৯ সেপ্টেম্বরের এই ঘটনাকে। যে ঘটনায় মৃত্যু হয়েছিলো ২,৯৭৭ জনের। আহত হয়েছিলেন ২৫ হাজারের বেশি মানুষ। দু’দশক প্রায় পার করে দিলেও যে ঘটনার বীভৎসতা আজও কাঁপিয়ে দেয় শুভবুদ্ধিসম্পন্ন মানুষের বোধকে।

কী হয়েছিলো সেদিন?

আমেরিকার উত্তরপূর্ব অঞ্চলের বিমানবন্দর থেকে ক্যালিফোর্নিয়ার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছিলো চারটি যাত্রীবাহী বিমান। এই চারটি বিমান ছিনতাই করে আল কায়দা গোষ্ঠীর আত্মঘাতী সন্ত্রাসবাদীরা। আমেরিকান এয়ারলাইন্স ফ্লাইট ১১, ইউনাইটেড এয়ারলাইন্স ফ্লাইট ১৭৫ দিয়ে সরাসরি আঘাত করা হয় লোয়ার ম্যানহাটনের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের উত্তর ও দক্ষিণ টাওয়ারে। ১১০ তলা বাড়ি সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হতে সময় নেয় মাত্র ১ ঘণ্টা ৪২ মিনিট। তৃতীয় বিমান আমেরিকান এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট ৭৭ আঘাত করে মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগের সদর দপ্তর ভার্জিনিয়ার পেন্টাগনে। সেই বাড়ির আংশিক ক্ষতি হয়। চতুর্থ বিমান ইউনাইটেড এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট ৯৩ ওয়াশিংটন ডিসির দিকে গেলেও পেনসিলভানিয়াতে জনবহুল এলাকায় ভেঙে পড়ে।

এই ঘটনায় নিউইয়র্কে ২,৭৫০ জনের মৃত্যু হয়। ১৮৪ জন মারা যান পেন্টাগনে এবং ৪০ জনের মৃত্যু হয় পেনসিলভানিয়াতে। এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত ১৯ জন সন্ত্রাসবাদীর সকলেরই মৃত্যু হয়।  

প্রথমদিকে এই ঘটনার দায় অস্বীকার করলেও ২০০৪-এ এই ঘটনার দায় স্বীকার করেন আলকায়দার প্রধান ওসামা বিন লাদেন। এরপর থেকেই লাদেনের খোঁজ পেতে তৎপর হয়ে ওঠে আমেরিকা। ২০১১ সালে পাকিস্তানে ওসামা বিন লাদেনকে হত্যা করে আমেরিকান বাহিনী।

জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন