গত কুড়ি বছরে পৃথিবীর বুকে সবুজায়ন বেড়েছে। এর নেপথ্যে রয়েছে দুটি দেশ - চীন ও ভারত। নাসার উপগ্রহগুলি থেকে এমন তথ্যই প্রকাশ পেয়েছে। জনসংখ্যার সাথে সাথে এই দুই দেশে বৃক্ষরোপণ ও কৃষিকাজ তালে তাল মিলিয়ে চলছে। ২০১৭ সালে মাত্র ১২ ঘন্টার মধ্যেই ভারতে স্বেচ্ছাসেবীরা ৬৬ মিলিয়ন গাছ লাগিয়ে এক অনন্য নজির গড়ে তোলেন।

সব তথ্য একসাথে নিলে, গত দুই দশকে যে পরিমাণ গাছের পাতা বৃদ্ধি পেয়েছে তা প্রায় দক্ষিণ আমেরিকার আমাজন রেন ফরেস্টের সমতুল্য। ২০০০ সালের পর থেকে প্রতি বছর প্রায় দুই মিলিয়ন বর্গ মাইল জুড়ে সবুজ পাতার পরিমাণ বাড়ছে, অর্থাৎ প্রায় ৫%করে বৃদ্ধি পাচ্ছে।

বোস্টন ইউনিভার্সিটির আর্থ এন্ড এনভায়রনমেন্ট বিভাগের প্রধান ডঃ চি চেন বলেন, চীন ও ভারতবর্ষে মোট এক তৃতীয়াংশ বনভূমি রয়েছে। কিন্তু এই জনবহুল দেশ দুটি মোট ভূভাগের মাত্র ৯ শতাংশ জমি চাষবাসের জন্য ব্যবহার করে। এই জনবহুল দেশে ভূমি হ্রাসের কথা মাথায় রেখে এই কাজ সত্যিই বিস্ময়ের।

নাসা এবং অ্যামেস রিসার্চ সেন্টারের গবেষক রাম নেমনি জানায়, "পৃথিবীর যখন প্রথম সবুজায়ন লক্ষ্য করা হয় তখন আমরা ভেবেছিলাম বায়ুমণ্ডলের অতিরিক্ত কার্বন ডাই অক্সাইড ও উষ্ণ আর্দ্র জলীয় বাষ্পর প্রভাবে সার তৈরি হয়, যার ফলে উদাহরণ স্বরূপ উত্তরের বনভূমি গুলিতে গাছের পাতা বৃদ্ধি পায়। কিন্তু এখন মোডিজের (নাসা কর্তৃক উপগ্রহে প্রেরিত এক যন্ত্রবিশেষ) তথ্যানুযায়ী আমরা পুঙ্খানুপুঙ্খ ভাবে জানতে পারি এই সবুজায়নে মানুষের অবদানও অপরিসীম।"

(ছবি সংগৃহীত)

 

জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন