সোশ‍্যাল মিডিয়ায় আসানসোল পুরসভার বিভ্রান্তিমূলক ছবি প্রচার করে সাম্প্রদায়িকগত উস্কানি দিচ্ছেন বিজেপি যুব মোর্চার রাজ‍্য সম্পাদক বাপ্পা চট্টোপাধ্যায়। আসানসোল পুরসভার এই অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয় বিজেপি নেতা বাপ্পা চট্টোপাধ্যায়কে। আসানসোল দক্ষিণ থানার পুলিশ গতকাল রাতে তাঁকে গ্রেফতার করে।

অন্যদিকে এই ঘটনার প্রতিবাদে সিপি অফিসের সামনে আজ ধর্নায় বসেছিলেন বিজেপি সাংসদ তথা মোর্চার রাজ‍্য সভাপতি সৌমিত্র খাঁ। তাঁকেও আটক করেছে আসানসোল পুলিশ। জানা গেছে, ধর্না তুলে নেওয়ার জন্য পুলিশের তরফে বারবার অনুরোধ করা হয় বিজেপি সাংসদকে। কিন্তু বাপ্পা চট্টোপাধ্যায়কে না ছাড়া পর্যন্ত ধর্না তুলতে রাজি হননি তিনি। এরপরই তাঁকে আটক করে পুলিশ।

দু'দিন আগে ফেসবুকে আসানসোল পুরসভার হোর্ডিংয়ের একটি ছবি পোস্ট করেন বাপ্পা চট্টোপাধ্যায়। যেখানে ইংরেজি, হিন্দি ও উর্দু ভাষায় আসানসোল পুরনিগম লেখা ছিল। এই ছবি পোস্ট করে বিজেপি নেতা অভিযোগ করেন, বাংলা ভাষাকে উপেক্ষা করা হচ্ছে, যা দেখে ক্ষোভে ফেটে পড়েন আসানসোলের বাসিন্দারা। তারাই পুরনিগমের মূল ফটকের সামনের সম্পূর্ণ ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন। যেখানে দেখা যায়, বিতর্কিত হোর্ডিংয়ের ঠিক ওপরেই শুধু বাংলাতে লেখা একটি বড় হোর্ডিং রয়েছে।

এই ঘটনার কথা জানতে পেরে থানায় অভিযোগ জানান আসানসোল পুরনিগমের মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারি। গতকাল মূল অভিযুক্ত বাপ্পা চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করে পুলিশ।


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন