কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব উপলক্ষ্যে বিভিন্ন জায়গায় মুখ্যমন্ত্রীর ছবি সম্বলিত পোস্টার ফ্লেক্স বিতর্কে এবার যোগ দিলেন তসলিমা নাসরিন। প্রথম এই বিষয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন চিত্র পরিচালক অনীক দত্ত।

চলচ্চিত্র উৎসবের এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে চিত্র পরিচালক অনীক দত্ত বলেছিলেন – সিনেমা আসলে পরিচালকেরও নয়, প্রযোজকেরও নয়। নন্দন চত্বর জুড়ে, আমাদের শহর জুড়ে যার ছবি আর কাটআউটে ছয়লাপ, আমার মনে হয় সিনেমা আসলে তাঁর।

এরপর বৃহস্পতিবার বিতর্ক বাঁধে ২৫ মিনিটের এক স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবি নিয়ে। যা নিয়ে প্রকাশ্যেই বিরক্তি প্রকাশ করেন দর্শকরা।

এবার প্রতিবাদীদের তালিকায় নাম লেখালেন বাংলাদেশ থেকে নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন। শুক্রবার সকালে নিজের ফেসবুক পোস্টে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যর পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কার্যত আক্রমণ করে নিজের ফেসবুক পোস্টে তিনি লেখেন -

 

“বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য বোকা ছিলেন, বুদ্ধু ছিলেন, শয়তানও ছিলেন তা না হলে আমাকে রাজ্য থেকে তাড়িয়েছেন কেন। এমন লোকও কিন্তু কলকাতা চলচ্চিত্র উতসবের পোস্টারগুলোয় নিজের ছবি দিয়ে ভরে ফেলতেন না। তাঁরও মিনিমাম রুচিটা ছিল। কিন্তু মমতা বন্দোপাধ্যায়ের রুচি কতটা নিম্ন মানের হলে তিনি চলচ্চিত্র উসব ভরে ফেলেন নিজের ছবিতে! কলকাতায় রবীন্দ্র জয়ন্তী হচ্ছে, নজরুল জয়ন্তী হচ্ছে, সবই মমতাময়। যেন সারাবছর মমতা জয়ন্তী চলে কলকাতা জুড়ে। মমতা বন্দোপাধ্যায় - যিনি গান না জানলেও গান করেন, কবিতা লিখতে না জানলেও কবিতা লেখেন, ছবি আঁকতে না জানলেও ছবি আঁকেন, নিজের সম্পর্কে তাঁর অতি উচ্চ ধারণা মানুষকে বিষ্মিত করে নিশ্চয়ই। মূখ্যমন্ত্রী আত্মপ্রেমে দিশেহারা বলে মোটেও কিন্তু আমি তাঁকে কটূক্তি করছি না। ভিন্ন ভিন্ন রুচির মানুষ নিয়েই এই সমাজ। আমি পশ্চিমবঙ্গের প্রগতিশীল রুচিশীল মানুষকে বরং ভসর্ণা করতে চাই, তাঁরা সব জেনেও কেন চুপচাপ বসে থাকেন! ভয়ে চুপ থাকেন, অথবা নির্ঝঞ্ঝাট জীবনের আশায় চুপ থাকেন, অথবা সুবিধে পাওয়ার আশায় চুপ থাকেন। চুপ থাকতে থাকতে পশ্চিমবঙ্গের চেহারা চরিত্রই বদলে যাচ্ছে। একে আর প্রগতিশীল ট্যাগ লাগিয়ে লজ্জা দেওয়া উচিত নয়।”

যদিও এই পোস্ট করার আধঘণ্টা বাদে নিজের পোস্টের একটি লাইন এডিট করে তিনি লেখেন - "কিন্তু মমতা বন্দোপাধ্যায় কতটা রুচিহীন এবং বোধহীন হলে চলচ্চিত্র উৎসবের আঙ্গিনা ভরে ফেলেন নিজের বিশাল বিশাল ছবিতে!"

(তসলিমা নাসরিনের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে সংগৃহীত)

(ফাইল ছবি)


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন