রাজ্যের অন্যান্য জায়গার মতো উত্তর বাংলার ডুয়ার্সের বিভিন্ন অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ছে মোমো আতংক। বিশেষ করে স্কুল কলেজ পড়ুয়াদের মোবাইলের হোয়াটস অ্যাপে আসছে মোমো গেমের মেসেজ। আহ্বান জানানো হচ্ছে গেম খেলার।এমনকি সরকারি কর্মী থেকে সাধারণ মানুষ – বাদ পড়ছেন না কেউই। অনেকেই কৌতূহলবশত এক দুবার জবাব দিয়ে থেমে যাচ্ছেন।

 

এভাবেই মাল বিদ্যুৎ দপ্তরের কর্মী নীহার মন্ডলের কাছে গত রবিবার রাতে আচমকা এক অজানা নম্বর থেকে হোয়াটস অ্যাপে মেসেজ আসে। রাতে তিনবার মেসেজ আসার পর সোমবার সকালেও একই মেসেজ আসে। গেম খেলতে আহ্বান জানান হয়। নীহারবাবু জানান, ঘটনাটা আমি কাউকে জানাইনি এবং কোন রকম জবাব দিইনি। নীহারবাবুর বাড়ি মালদহে। কর্মসূত্রে তিনি মালে থাকেন।

একইরকম ভাবে সোমবার সকালে ওদলাবাড়ির এক কলেজ পড়ুয়ার মোবাইলে এরকম মেসেজ আসে। ভয়ে মেয়েটি ব্লক করে দেয়। এক চা বাগানের কর্মীর মোবাইলে রবিবার বিকালে এইরকম মেসেজ আসে। ইংরাজিতে পটু না হওয়ায় ওই কর্মী এক প্রতিবেশীকে মেসেজটি দেখালে তিনি সেই মেসেজ ব্লক করে দেন।

এভাবেই প্রতিদিন কারো না কারো মোবাইলে এরকম মেসেজ আসছে।এনিয়ে আতংক ছড়াছে।পুলিশ অবশ্য এই ধরণের মেসেজ নিয়ে সতর্ক থাকতে বলেছে। এরকম মেসেজ এলে ব্লক করার পরামর্শ দিচ্ছে।


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন