West Bengal: মিড ডে মিলে কমলো বরাদ্দ, কমলো চিনি, সয়াবিনের পরিমাণ

গত ২ ফেব্রুয়ারি এক সরকারি নির্দেশিকায় মার্চ এবং এপ্রিল মাসের জন্য এই আদর্শ আচরণবিধি জারি হয়েছিলো। কিন্তু নির্বাচন মিটতেই উপাদান ও পরিমাণ কমিয়ে দেওয়া হল।
West Bengal: মিড ডে মিলে কমলো বরাদ্দ, কমলো চিনি, সয়াবিনের পরিমাণ
ছবি প্রতীকী সংগৃহীত

এক ধাক্কায় কমিয়ে দেওয়া হল স্কুলের মিড ডে মিলে দেওয়া খাদ্য সামগ্রীর পরিমাণ। নির্বাচনের আগে মিড ডে মিলে ডাল, সোয়াবিন এবং চিনি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছিল রাজ্য। গত ২ ফেব্রুয়ারি এক সরকারি নির্দেশিকায় মার্চ এবং এপ্রিল মাসের জন্য এই আদর্শ আচরণবিধি জারি হয়েছিলো। কিন্তু নির্বাচন মিটতেই উপাদান ও পরিমাণ কমিয়ে দেওয়া হল। আগামী মাস থেকে মিড ডে মিলে দেওয়া হবে না ছোলা। অর্ধেক করে দেওয়া হয়েছে চিনি এবং সোয়াবিনের পরিমাণ।

২৫ মে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে সরকার জানিয়েছে, চাল, আলু, ডাল এবং সাবান দেওয়া হবে। চাল এবং আলুর পরিমাণ এক থাকলেও নতুন বিজ্ঞপ্তি অনুসারে চিনির পরিমাণ ৫০০ গ্রাম থেকে কমিয়ে ২৫০ গ্রাম, সোয়াবিনের পরিমাণ ২০০ গ্রাম থেকে কমিয়ে করা হয়েছে ১০০ গ্রাম। স্কুল শিক্ষা দফতর থেকে জেলাশাসক, জিটিএ, শিলিগুড়ির মহকুমাশাসক ও কলকাতা পুরসভাকে একটি বিজ্ঞপ্তি পাঠিয়েছেন। ওই বিজ্ঞপ্তি অনুসারে আগামী ৭ জুন থেকে এই নির্দেশ কার্যকরী হবে।

দু’মাস আগে মিড ডে মিলের খাদ্যসামগ্রীর তালিকায় অতিরিক্ত খাদ্যসামগ্রী দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল স্কুলশিক্ষা দফতর। করোনা আবহে গতবছর মার্চ মাস থেকে স্কুল বন্ধ হয়। তারপর থেকেই প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত মিড ডে মিলে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ শুরু করে রাজ্য। গত এপ্রিল মাস পর্যন্ত চাল, আলু এবং সাবান বিতরণ করা হয়েছে। মার্চ থেকে প্যাকেটে যোগ হয় এক কিলো ছোলা, ৫০০ গ্রাম চিনি, ২৫০ গ্রাম ডাল, এবং ২০০ গ্রাম সোয়াবিনের প্যাকেট।

রাজ্যের শিক্ষক সংগঠনগুলির অভিযোগ, 'ভোটারদের প্রভাবিত করতে মিড ডে মিলের খাদ্য সামগ্রীতে নতুন একাধিক জিনিস যোগ করেছিল রাজ্য সরকার। ভোট মেটার পর নতুন এই সিদ্ধান্ত অনৈতিক।'

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in