'সঠিক পদ্ধতি নাও হতে পারে', বাবুলের ইস্তফা-মন্তব্যে ক্ষুব্ধ দিলীপ - 'স্যাক করলে ভালো হতো?'

দিলীপ বলেন, ‘তাঁকে স্যাক করা হলে ভালো হত? পদ্ধতি মেনে হয়েছে। আপনি পদ ছাড়ুন, অন্য কেউ দায়িত্ব নিক। আপনাকে অন্য কাজে লাগানো হবে। সবাই তাই করেন। ১২ জন মন্ত্রী পদত্যাগ করেছেন। কেউ তো এমন লেখেননি?'
'সঠিক পদ্ধতি নাও হতে পারে', বাবুলের ইস্তফা-মন্তব্যে ক্ষুব্ধ দিলীপ - 'স্যাক করলে ভালো হতো?'
দিলীপ ঘোষ এবং বাবুল সুপ্রিয়ফাইল ছবি

ইস্তফা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে আমাকে। বুধবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় রদবদলের আগে টানা সাতবছর মন্ত্রী থাকার পর মন্ত্রিত্ব হারিয়ে এমনটাই বলেছিলেন আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। তা নিয়ে ওইদিন রাতেই খড়গপুরে সাংবাদিক বৈঠকে নাম না করে বাবুলকে বিঁধলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাঁর দাবি, বুধবার পদত‍্যাগ করা ১২ জন মন্ত্রীর একজনও নেটমাধ্যমে এরকম মন্তব্য করেননি। এই প্রসঙ্গে কোনও ব্যাখ্যা না দিয়ে তাঁর মন্তব্য, যা বলার উনি (বাবুল) বলতে পারবেন।

বুধবার সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের ইস্তফা প্রসঙ্গে বাবুল সুপ্রিয় লিখেছিলেন, ‘হ্যাঁ, আমি মন্ত্রিসভা থেকে ইস্তফা দিয়েছি। ইস্তফা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এটা সঠিক পদ্ধতি নাও হতে পারে।' এই পোস্টে তিনি একপ্রকার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাজের পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বলে অভিযোগ রাজ্যের বিজেপি নেতৃত্বের একাংশের।

এর জবাবে মেদিনীপুরের সাংসদ বলেন, ‘তাঁকে (বাবুল) স্যাক (বরখাস্ত) করা হলে ভালো হত? পদ্ধতি মেনে হয়েছে। আপনি পদ ছাড়ুন, অন্য কেউ দায়িত্ব নিক। আপনাকে অন্য কাজে লাগানো হবে। সবাই তাই করেন। ১২ জন মন্ত্রী পদত্যাগ করেছেন। কেউ তো এমন লেখেননি? কাজের প্রতি আস্থা রাখা উচিত। পার্টির কাজ করছি, বিধায়ক-সাংসদ যা হয়েছি, সবই পার্টির জন্য।’

দলের অন্দরের বিবাদের কথাও বাবুলের পোস্টে স্পষ্ট। তিনি লেখেন, ‘যেখানে ধোঁয়া বেরোতে দেখা যায়, কোথাও না কোথাও আগুন তো থাকবেই।’

যদিও দিলীপ ঘোষর কথায়, সরকারের কর্মসূচি এবং দলের সাংগঠনিক অগ্রগতির স্বার্থে রদবদল স্বাভাবিক। তিনি বলেন, ‘অতীতেও অনেকে সরকার থেকে সংগঠনের কাজে গিয়েছেন। কেউ বাদ পড়েছেন। কেউ মুখ্যমন্ত্রী থেকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিত্বে যাচ্ছেন। পার্টিতে সব চলে। সবাইকে সব কাজে অভিজ্ঞ করার জন্য করতে হয়। আমাদের কাছে আনন্দের খবর, মন্ত্রীর সংখ্যা বাড়ছে। যাঁরা মন্ত্রী হচ্ছেন, তাঁদের প্রশাসনিক ক্ষমতা, অভিজ্ঞতা বাড়বে। তাতে পরে বাংলার লাভ হবে।’

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in