Malda: ভাঙ্গন পরিস্থিতি পরিদর্শনে বাম প্রতিনিধি দল, সঙ্গে নওশাদ সিদ্দিকী, অনুপস্থিত কংগ্রেস

মালদা জেলার মানিকচক ব্লকের ভুতনি চরের কেশবপুর এলাকায় বিগত কিছুদিন আগের বাঁধের একাংশ গঙ্গা নদীগর্ভে তলিয়ে যায়।
Malda: ভাঙ্গন পরিস্থিতি পরিদর্শনে বাম প্রতিনিধি দল, সঙ্গে নওশাদ সিদ্দিকী, অনুপস্থিত কংগ্রেস
মাণিকচক ভুতনির চরে বাম প্রতিনিধি দল, সঙ্গে নওশাদ সিদ্দিকিনিজস্ব চিত্র

মালদা জেলার মানিকচক ব্লকের ভুতনির চরের কেশবপুর এলাকায় বিগত কিছুদিন আগের বাঁধের একাংশ গঙ্গা নদীগর্ভে তলিয়ে যায়, পাশাপাশি গদাই চরের কয়েকশো পরিবার গঙ্গা নদীর জলে বন্যায় প্লাবিত হয়। বর্তমানে বানভাসিরা ভুতনির হীরানন্দপুর বাঁধে ঠাঁই নিয়েছে ।

রবিবার সংযুক্ত মোর্চার পক্ষ থেকে সিপিআইএম পলিটব্যুরো সদস্য মহম্মদ সেলিম, রাজ্যসভার সিপিআইএম সাংসদ বিকাশ রঞ্জন ভট্টাচার্য এবং ভাঙ্গর বিধানসভার আইএসএফ বিধায়ক নওশাদ সিদ্দিকী, সিপিএইএম মালদা জেলা সম্পাদক অম্বর মিত্র সহ এক প্রতিনিধিদল ওই এলাকা ঘুরে দেখেন এবং স্থানীয় মানুষের সঙ্গে কথা বলেন। সাধারণ মানুষ ও বানভাসি মানুষদের অসুবিধার কথা শোনেন এই প্রতিনিধি দলের সদস্যরা।

পাশাপাশি ভুতনি চরের মানুষকে তাঁরা আশ্বাস দেন, তাঁদের অসুবিধার কথা ও ভাঙ্গনজনিত দুরবস্থার পরিস্থিতি বিধানসভা ও রাজ্যসভায় তুলে ধরা হবে।

রবিবার দুপুরে ভুতনির কোশিঘাট এলাকার ভাঙ্গন পরিদর্শনের শেষে, সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বিকাশ রঞ্জন ভট্টাচার্য, মহম্মদ সেলিমরা, নওশাদ সিদ্দিকিরা জানান, মালদায় ভাঙ্গনের অবস্থা খুব ভয়াবহ। রাজ্য এবং কেন্দ্র সরকারের অবহেলার ফলে ভুতনি চরের মানুষের এই দুরবস্থা।

তাঁরা আরও বলেন, বালির বস্তা দিয়ে ভাঙ্গন রোধ সম্ভব নয়। ভাঙ্গন রোধের জন্য প্রয়োজন সঠিক পরিকল্পনার। এই সমস্যার কথা এবং মানুষের অসুবিধার কথা আমরা রাজ্যসভা ও বিধানসভায় তুলে ধরবো।

এদিনের প্রতিনিধিদলে উপস্থিত ছিলেন বামফন্টের শ্রমিক সংগঠনের জেলা সম্পাদক দেবজ্যোতি সিনহা, বামফন্ট নেতা শ্যামল বসাক। তবে এদিনের পরিদর্শনের সময় সংযুক্ত মোর্চার প্রতিনিধিদলের সঙ্গে কংগ্রেসের তরফ থেকে কোন প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন না।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in