TMC: "দু'পয়সার সাংবাদিক" - মন্তব্যের জের, মহুয়া মৈত্রকে হাজিরার নির্দেশ দিল আদালত

তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্রের বিরুদ্ধে মানহানির মামলার আবেদন করেছিলেন আইনজীবী সুরজিৎ রায়চৌধুরী। সেই মামলার ভিত্তিতে মহুয়াকে হাজিরার নির্দেশ দিলেন ব্যাঙ্কশাল কোর্টের ১০ নম্বর মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট।
TMC: "দু'পয়সার সাংবাদিক" - মন্তব্যের জের, মহুয়া মৈত্রকে হাজিরার নির্দেশ দিল আদালত
মহুয়া মৈত্রগ্রাফিক্স - নিজস্ব

তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্রকে হাজিরার নির্দেশ দিল আদালত। ২০২০ সালে নদিয়ার গয়েশপুরে তৃণমূলের এক কর্মীসভায় বক্তব্য রাখার সময় সাংবাদিকদের সরাসরি "দু'পয়সার সাংবাদিক" বলে অপমান করার অভিযোগ উঠেছিল মহুয়া মৈত্রের বিরুদ্ধে। মহুয়ার সেই 'মানহানিকর' মন্তব্যের জেরে তাঁকে হাজিরার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্রের বিরুদ্ধে মানহানির মামলার আবেদন করেছিলেন আইনজীবী সুরজিৎ রায়চৌধুরী। সোমবার সেই আবেদনের ভিত্তিতে মহুয়াকে হাজিরার নির্দেশ দিলেন ব্যাঙ্কশাল কোর্টের ১০ নম্বর মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট। আগামী ১৪ জুন হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে।

ঠিক কী ঘটেছিল? ২০২০ সালের ৭ ডিসেম্বর নদিয়ার গয়েশপুরে করিমপুর ২ নং ব্লকে তৃণমূলের একটি কর্মীসভা ছিল। সভায় বক্তব্য রাখতে বলা হয়েছিল নদিয়ার তৃণমূল সাংসদ মহুয়াকে। সভায় বক্তব্য রাখার সময় তিনি সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে অবমাননাকর মন্তব্য করছিলেন। সেই বক্তব্যের ভিডিও ভাইরাল হয়, যেখানে মহুয়াকে বলতে শোনা যায়, "কে এই দু’‌পয়সার প্রেসকে ভিতরে ডাকে?‌ সরিয়ে দাও প্রেসকে এখান থেকে। কেন দলের মিটিংয়ে প্রেস ডাকো তোমরা?‌ কর্মী বৈঠক হচ্ছে আর সবাই টিভিতে মুখ দেখাতে ব্যস্ত। আমি দলের সভানেত্রী, আমি আপনাদের নির্দেশ দিচ্ছি, প্রেসকে সরান।" এই মন্তব্যের পর বিতর্কের ঝড় উঠেছিল সংবাদমাধ্যম এবং বিভিন্ন রাজনৈতিক মহলে।

শুধু তাই নয়, এরপর তৃণমূল সাংসদ যথেষ্ট উগ্র মনোভাব দেখিয়ে ট্যুইটারে লিখেছিলেন, "আই অ্যাপোলোজাইজ ফর দ্য মিন হার্টফুল অ্যাকিউরেট থিংস আই সেড।" অর্থাৎ 'সঠিক মন্তব্যের জন্য ক্ষমা' চেয়েছিলেন মহুয়া।

এই ঘটনার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ক্ষমা চাওয়ার জন্য মহুয়াকে আইনি নোটিশ দিয়েছিলেন আইনজীবী সুরজিৎ রায়চৌধুরী এবং অজিত কুমার মিশ্র। কিন্তু তাঁরা জানিয়েছিলেন, এই ধরণের আপত্তিকর মন্তব্যের পর মহুয়া একবারও ক্ষমা চাননি। বরং সোশ্যাল মিডিয়ায় আরও অপমানজনক মন্তব্য করেছেন। সেই কারণেই মহুয়ার বিরুদ্ধে এবার আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন আইনজীবী।

মহুয়া মৈত্র
CPIM: রাজ্য সরকার জনসাধারণের টাকায় আদালতে মামলা করে চোরদের বাঁচাতে চাইছে - মহ: সেলিম

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in