স্পিকারের এক্তিয়ার নিয়ে ফের সংঘাতে ধনখড়

বিধানসভায় স্পিকারের এক্তিয়ার নিয়ে হস্তক্ষেপ করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। তাতে ফের বিধানসভা ও রাজ্যপালের মধ্যে সংঘাত বাঁধল।
স্পিকারের এক্তিয়ার নিয়ে ফের সংঘাতে ধনখড়
ফাইল ছবি

রাজ্যের চার মন্ত্রীকে গ্রেফতার করার ক্ষেত্রে সিবিআইকে অনুমতি দিয়েছিলেন রাজ্যপাল। তার প্রেক্ষিতে তাঁদের গ্রেফতারও করে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। তা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। গ্রেফতারের আগে তাঁকে জানানো হয়নি। আর সেটা অসাংবিধানিক। এমনটাই দাবি করেছেন তিনি। তার জেরে বিধানসভায় স্পিকারের এক্তিয়ার নিয়ে হস্তক্ষেপ করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। তাতে ফের বিধানসভা ও রাজ্যপালের মধ্যে সংঘাত বাঁধল।

তৃণমূলের নতুন মন্ত্রীসভা গঠনের পর বিধায়কদের সুরক্ষায় থাকা কেন্দ্রীয় বাহিনীকে বিধানসভায় প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। শুভেন্দু অধিকারীর নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে। তার জেরে স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। সেই নির্দেশ নিয়ে এবার বিধানসভার বক্তব্য জানতে চেয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। কেন্দ্রীয় বাহিনীর প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা নিয়ে বিধানসভার সচিবকে চিঠি লিখেছিলেন রাজ্যপাল। স্পিকারের মত নিয়ে সচিবালয় থেকে রাজ্যপালের চিঠির জবাবে বলা হয়, নির্দিষ্ট বিধি মেনেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বিধানসভা পরিচালনার নির্দিষ্ট বিধি ৩৫২ ও ৩৬০ নম্বর ধারা মেনে চিক হয়েছে।

বিমানবাবু বলেন, ‘একটি নির্দিষ্ট ঘটনার প্রেক্ষিতে বিধানসভার অভ্যন্তরীণ পরিবেশ রক্ষায় একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ প্রশ্ন উঠছে, সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান পরিচালনা বা তার ভিতরের প্রশাসনিক বন্দোবস্ত নিয়ে রাজ্যপাল কি এভাবে সরাসরি হস্তক্ষেপ করতে পারেন? মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘স্পিকার না চাইলে রাজ্য পুলিশও বিধানসভায় ঢুকতে পারে না। স্পিকারের এই সিদ্ধান্ত প্রশ্নাতীত। রাজ্যপাল চাইলে সচিবালয় তাঁকে আইনটুকু জানিয়ে দিতে পারে।’

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in