কেন্দ্রের ভ্যাকসিন নীতির ফলে প্রবল অর্থনৈতিক বোঝা চাপবে রাজ্যে: পিনারাই বিজয়ন

বিজয়ন সাংবাদিকদের বলেন, ভ্যাকসিন উৎপাদনকারীদের হাতে দাম নির্ধারণের ক্ষমতা দেওয়ার ফলেই এই সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। রাজ্যগুলোর জন্য ভ্যাকসিন বরাদ্দের কোনও ব্যবস্থা নেই।
কেন্দ্রের ভ্যাকসিন নীতির ফলে প্রবল অর্থনৈতিক বোঝা চাপবে রাজ্যে: পিনারাই বিজয়ন
কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নফাইল ছবি- সংগৃহীত

তিরুঅনন্তপুরম, ২৪ এপ্রিল: কেন্দ্রীয় সরকারের নতুন ভ্যাকসিন নীতির ফলে রাজ্য সরকারগুলোর উপর অতিরিক্ত আর্থিক বোঝা সৃষ্টি করছে। শুক্রবার কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কনফারেন্সের এমনই উদ্বেগ প্রকাশ করেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন।

বিজয়ন বলেন, ৪০০ টাকা করে ভ্যাকসিনের একটি ডোজ কিনতে গেলে রাজ্য সরকারকে ১৩০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করতে হবে। যার প্রভাব সরাসরি রাজ্যগুলোর আর্থিক পরিস্থিতির উপর প্রভাব পড়বে। এমনিতেই মহামারীর কারণে আর্থিক সংকটে ভুগছে রাজ্য। তারওপর এই অতিরিক্ত ভ্যাকসিন বাবদ বরাদ্দ।

বিজয়ন সাংবাদিকদের বলেন, ভ্যাকসিন উৎপাদনকারীদের হাতে দাম নির্ধারণের ক্ষমতা দেওয়ার ফলেই এই সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। রাজ্যগুলোর জন্য ভ্যাকসিন বরাদ্দের কোনও ব্যবস্থা নেই। এরফলে ভ্যাসিন সংগ্রহের জন্য প্রতিযোগিতার সৃষ্টি করছে। মহামারীকালে এরকম ব্যবস্থা একেবারেই আশা করা যায় না। এই পরিস্থিতিতে যার কাছে টাকা আছে তারাই শুধু ভ্যাকসিন পাবে এমন নীতি কখনই মেনে নেওয়া যায় না। দেশ তথা রাজ্যগুলোতে টিকাকরণ বিনামূল্যে হওয়ার নীতিই তৈরি করা উচিত।

কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন
Oxygen Crisis: রাজ্যের চাহিদা মিটিয়ে অন্য রাজ্যে অক্সিজেন সরবরাহ করছে কেরালা

সারা দেশের মতো কেরলেও ক্রমশ বেড়ে চলেছে সংক্রমণ। মোকাবিলায় তিনটি পদ্ধতি অবলম্বন করে চলেছে রাজ্য। যত পরিমাণ সম্ভব টেস্ট করানো, কোভিড হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসা, প্রয়োজন না হলে রোগীকে বাড়িতে আইসোলেশনে রাখা, সম্পূর্ণ লকডাউন থেকে রাজ্যকে বাঁচাতে নির্দিষ্ট নিয়মবিধি মেনে চলা। সপ্তাহান্তে লকডাউনের মতোই রাজ্যে নিয়মবিধি মেনে চলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শুধুমাত্র জরুরি পরিষেবা খুলে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in