কেন্দ্রের লাগামহীন বেসরকারিকরণের উদ্যোগে উদ্বিগ্ন দেশের একাধিক দপ্তর-মন্ত্রক

ক্ষেত্রগুলোকে দুটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে। প্রয়োজনে তা বেসরকারিকরণ করা হবে, না হলে তা বন্ধ করে দেওয়া হবে।
কেন্দ্রের লাগামহীন বেসরকারিকরণের উদ্যোগে উদ্বিগ্ন দেশের একাধিক দপ্তর-মন্ত্রক
ফাইল চিত্র

নয়াদিল্লি, ২৬ মার্চ: নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার কেন্দ্রের বহু মন্ত্রক এবং দপ্তর বেসরকারিকরণ করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। সম্প্রতি একটি রিপোর্টে এই তথ্য উঠে এসেছে। সম্প্রতি অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ কেন্দ্রীয় বাজেটে বেশ কিছু পাবলিক সেক্টর এন্টারপ্রাইস পলিসির কথা বলেন। যে রিপোর্টটিতে এই বেসরকারিকরণ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে, তাতে উল্লেখ করা হয়েছে, প্রতিরক্ষা, স্বাস্থ্য, কয়লার মতো ক্ষেত্রগুলো বেসরকারিকরণের জন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

এই ক্ষেত্রগুলোকে দুটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে। প্রয়োজনে তা বেসরকারিকরণ করা হবে, না হলে তা বন্ধ করে দেওয়া হবে। রিপোর্টে ডিপার্টমেন্ট অফ ইনভেস্টমেন্ট অ্যান্ড পাবলিক অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট (ডিআইপিএএম) ও মন্ত্রকগুলোর মধ্যেকার কথপোকথনের কথা তুলে ধরা হয়েছে। তথ্য জানা অধিকার আইনের অধীনে ২০২০ সালের জুলাই মাসে এই তথ্য পাওয়া গিয়েছে।

কেন্দ্রের লাগামহীন বেসরকারিকরণের উদ্যোগে উদ্বিগ্ন দেশের একাধিক দপ্তর-মন্ত্রক
সব ব্যাংক বেসরকারিকরণ করা হবে না, ধর্মঘটের মুখে আশ্বাস অর্থমন্ত্রীর

ডিআইপিএএম জানিয়েছে, বেসরকারিকরণের ফলে অর্থসংস্থান, প্রযুক্তি-সহ একাধিক ক্ষেত্রকে উন্নত করা যাবে। এর মধ্যে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রও রয়েছে। অ্যাটমিক এনার্জি ক্ষেত্রও নিজেদের ৪টি ফার্মের মধ্যে ২টি কোম্পানি নিজেদের অধিনে রাখার চেষ্টা করছে। কারণ এতে জাতীয় নিরাপত্তার বিষয়টিও রয়েছে।

এছাড়াও কয়লাক্ষেত্র, জ্বালানি ক্ষেত্রও বেসরকারিকরণের দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে রয়েছে। মূলত কোভিড ১৯ মহামারিকালে এই বেসরকারিকরণের উদ্যোগ বেশি করে নিয়েছে কেন্দ্র। যার আসন্ন ফল নিয়ে উদ্বেগে রয়েছে বিভিন্ন মন্ত্রক ও দপ্তর।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in