পরিযায়ী শ্রমিকদের একাউন্টে টাকা দেওয়া হোক, কেন্দ্রকে আর্জি রাহুল গান্ধীর
রাহুল গান্ধীফাইল ছবি

পরিযায়ী শ্রমিকদের একাউন্টে টাকা দেওয়া হোক, কেন্দ্রকে আর্জি রাহুল গান্ধীর

তাঁর প্রশ্ন, কিন্তু করোনা ছড়ানোর জন্য জনতার দিকেই দোষারোপের আঙুল তোলা কেন্দ্র কি আদৌ এই ধরনের জনসহায়তা করবে?

২০ এপ্রিল, নয়া দিল্লি- করোনা সংক্রমণের উত্তরোত্তর বৃদ্ধির রুখতে ইতিমধ্যে লকডাউনের পথে হাঁটতে শুরু করেছে দিল্লি, রাজস্থান, উত্তরপ্রদেশ, পঞ্জাব। পরিযায়ী শ্রমিকরাও ঘরে ফেরার পথে। দেশের বর্তমান করোনা পরিস্থিতি অত্যন্ত সংকটজনক। সেসব দিক মাথায় রেখে পরিযায়ী শ্রমিকদের হয়ে কেন্দ্রের কাছে আর্জি জানালেন রাহুল গান্ধী। তাঁর আর্জি, পরিযায়ী শ্রমিকদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠানো হোক।

এদিন টুইটারে রাহুল গান্ধী লিখেছেন, ফের রাস্তায় পরিযায়ী শ্রমিকরা। এই অবস্থায় কেন্দ্রের কর্তব্য তাদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা দেওয়া। তারপরেই তাঁর প্রশ্ন, কিন্তু করোনা ছড়ানোর জন্য জনতার দিকেই দোষারোপের আঙুল তোলা কেন্দ্র কি আদৌ এই ধরনের জনসহায়তা করবে?

প্রসঙ্গত, বিভিন্ন রাজ্যের করোনা মোকাবিলার জন্য ওষুধ, টিকা, অক্সিজেন নিয়ে কেন্দ্রের নিয়ন্ত্রণের প্রবণতা দেখা গিয়েছে। সম্প্রতি মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে সে-রাজ্যে অক্সিজেনের সংকত মেটানোর জন্য প্রধানমন্ত্রীর দ্বারস্থ হয়েছিলেন। কিন্তু তিনি বঙ্গে প্রচারে ব্যস্ত থাকার জন্য তাঁর সঙ্গে কথাই বলে উঠতে পারেননি ঠাকরে। সেই ঘটনা নিয়ে গোটা দেশজুড়ে সমালোচনার ঝড় বয়।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ লক্ষ ৫৯ হাজার। রাজধানীতে নতুন করে আক্রান্ত ২৩ হাজারেরও বেশি মানুষ, মহারাষ্ট্রে সংখ্যাটা ৫৮ হাজার ছাড়িয়েছে। বঙ্গেও সংখ্যাটা ক্রমশ বাড়ছে। কয়েকটি রাজ্যে লকডাউন ঘোষণা হওয়ায় এবার পথে পরিযায়ী শ্রমিকরা।

প্রসঙ্গত করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখেই পশ্চিমবঙ্গে প্রচারসূচী বাতিল করেছেন রাহুল। দিল্লিতে লক‌ডাউন ঘোষণার পর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের বার্তা, দয়া করে দিল্লি ছেড়ে কেউ যাবেন না। যেতে আসতে সময় ও টাকা নষ্ট হবে। এরাজ্যে কারোর কোনও সমস্যা হবে না। যদিও ঘরে ফেরার পথেই ভিড় বাড়িয়েছেন শ্রমিকরা।

GOOGLE NEWS-এ আমাদের ফলো করুন

Related Stories

No stories found.