গরিব পরিবারে বিনামূল্যে ইন্টারনেট পরিষেবা, 'বৈপ্লবিক পদক্ষেপ' কেরল সরকারের

রিলায়েন্স জিও গ্রুপ নিজেদের পরিষেবা দেশজুড়ে ছড়িয়ে দিলেও কেরলের KFON বেসরকারি ব্রডব্যান্ড পরিষেবাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে এই পদক্ষেপ করেছে। প্রায় ২০ লাখ মানুষ এর মাধ্যমে দ্রুত ও বিনামূল্যের পরিষেবা পাবেন।
গরিব পরিবারে বিনামূল্যে ইন্টারনেট পরিষেবা, 'বৈপ্লবিক পদক্ষেপ' কেরল সরকারের
পিনারাই বিজয়নছবি সংগৃহীত

গরিব পরিবারগুলোর মধ্যে বিনামূল্যে ইন্টারনেট পরিষেবা পৌঁছে দিতে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে কেরল সরকার। ফাইবার অপটিক নেটওয়ার্ক (কেএফওএন) প্রকল্পের মাধ্যমে এটা করা হবে। সোমবার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন অনলাইনে এই প্রকল্পের উদ্বোধন করেন। বিজয়ন জানিয়েছেন, এই প্রকল্পকে বাস্তব করতে পেরে তিনি খুব খুশি।

প্রথম পর্যায়ে রাজ্যের স্কুল, হাসপাতাল, অফিস এবং বাড়িতে পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া হবে। এরনাকুলাম, ত্রিশূর, পালাক্কাড, পাথানামথিত্তা, আলাপ্পুঝা, কোল্লাম এবং তিরুঅনন্তপুরম জেলায় পরিষেবার উদ্বোধন করা হয়। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, এই প্রকল্পটি একটি 'বৈপ্লবিক পদক্ষেপ'। অপটিক ফাইবার নেটওয়ার্কের মাধ্যমে রাজ্যের সমস্ত বাড়িতে ও অফিসে পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া হবে। গরিবদের মধ্যে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ও মধ্যবিত্তদের সহজলভ্য দামে ইন্টারনেট পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, কেরলই প্রথম এমন রাজ্য যেখানে মৌলিক মানবাধিকার হিসেবে ইন্টারনেট পরিষেবাকে ধরা হয়েছে। বেসরকারি ক্ষেত্রে ভোডাফোন-আইডিয়া ৫১.৯ শতাংশ মার্কেট শেয়ারে ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদান করে। রিল্যায়েন্স জিও ২২.৬ শতাংশ মার্কেট শেয়ারে পরিষেবা প্রদান করে থাকে। অন্যদিকে, বিএসএনএল-এর শেয়ার সরকারি ক্ষেত্রে মাত্র ১২.৬ শতাংশ। মুকেশ আম্বানির রিলায়েন্স জিও গ্রুপ নিজেদের পরিষেবা দেশজুড়ে ছড়িয়ে দিলেও কেরলের কেএফওএন বেসরকারি ব্রডব্যান্ড পরিষেবাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে এই পদক্ষেপ করেছে। প্রায় ২০ লাখ মানুষ এর মাধ্যমে দ্রুত ও বিনামূল্যের পরিষেবা পাবেন। এই নতুন প্রকল্পের উদ্বোধন করে মুখ্যমন্ত্রী বিজয়ন বলেন, একটি নলেজ ইকনমি হাব ও আইটি হাব-এরও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছে রাজ্য সরকার। ২০২০ সালের মে মাসেই এই প্রকল্পের কথা ঘোষণা করে বিনামূল্যে ইন্টারনেট পরিষেবা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিল কেরল সরকার। এবার সেই প্রতিশ্রুতি রাখল পিনারাই বিজয়ন সরকার।

No stories found.
People's Reporter
www.peoplesreporter.in