বকেয়া বেতনের দাবিতে গত ১১ দিন ধরে প্রতিবাদ আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন অন্ধ্রপ্রদেশের নেল্লোরের পুরকর্মীরা। স্থানীয় শ্রমিক সংগঠনের তরফে জানানো হয়েছে, গত তিন মাস ধরে নেল্লোরের পুরকর্মীরা কোনও বেতন পাননি। কিন্তু পুরসভার তরফে এইসব কর্মীদের রিয়েল টাইম মনিটরিং সিস্টেমের সাহায্যে আবর্জনা সংগ্রহ করতে পাঠানো হচ্ছে।

অন্ধ্রপ্রদেশ মিউনিসিপ্যাল ওয়ার্কার্স অ্যান্ড এমপ্লইস ফেডারেশনের সদস্য আল্লাডি গোপাল জানিয়েছেন, কর্মীরা ইতিমধ্যেই বকেয়া বেতনের দাবি ছাড়াও কাজের সময় বৃদ্ধি ও আরও অন্যান্য দাবিতে আন্দোলন শুরু করেছেন। নেল্লোরের গ্রামীণ ও শহর এলাকাতেও আন্দোলনের আয়োজন করেছেন গোপাল।

পুরকর্মীদের প্রধান দাবি, বেতন বাড়িয়ে মাসিক ন্যূনতম ২৪ হাজার টাকা করতে হবে, আরটিএমএস পদ্ধতি পরিবর্তন করতে হবে, স্থায়ী চাকরির ব্যবস্থা করতে হবে। এছাড়াও আরও অনেক দাবি রয়েছে তাদের। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক কে উমা মহেশ্বর রাও জানিয়েছেন, রাজ্যজুড়ে এই আন্দোলন করা হবে। আগামী ২ নভেম্বর এই প্রতিবাদ আন্দোলনে অংশগ্রহণ করবেন পুরকর্মীরাও।

রাও জানান, নিবার্চনের আগে জগনমোহন রেড্ডি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, চুক্তিবদ্ধ কর্মীদের স্থায়ী চাকরি দেওয়া হবে। আরও পুরকর্মীও নিয়োগ করা হবে। কিন্তু সেরকমটা কিছুই হয়নি। বরং মুখ্যমন্ত্রী পদে বসার পর এই বিষয়টি নিয়ে তিনি বরাবরই নীরবই থেকেছেন। পুরকর্মীরা এবার নিজেদের নীরবতা ভেঙে আন্দোলনের পথ বেছে নিয়েছেন।  চাকরি স্থায়ীকরণে ফলে উপকৃত হবেন প্রায় ৪০ হাজার কর্মী। কোভিড পরিস্থিতিতে যেভাবে নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করেছেন পুরকর্মীরা, সেখানে তাঁদের প্রশংসা না করে উল্টে তাঁদের হেনস্থা করা হচ্ছে।


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন