সংসদ ভবনে গান্ধী মূর্তির পাদদেশেই রাত কাটালেন রাজ‍্যসভা থেকে বহিষ্কৃত হওয়া আট সাংসদ। গতকাল রাজ‍্যসভা থেকে বহিষ্কৃত হওয়ার পরই গান্ধী মূর্তির নীচে ধর্নায় বসেন তাঁরা। এখনও সেই বিক্ষোভ অব্যাহত রেখেছেন তাঁরা। এঁদের মধ্যে রয়েছেন সিপিআইএমের কে কে রাগেশ ও ই করিম, কংগ্রেসের রাজীব সাতভ, সৈয়দ নাজির হোসেন, রিপুন ভোরা, আম আদমি পার্টির সঞ্জয় সিং এবং তৃণমূলে কংগ্রেসের ডেরেক ও'ব্রায়েন ও দোলা সেন।

প্রসঙ্গত, রবিবার রাজ‍্যসভায় বিতর্কিত কৃষি বিল পাশ করানোর সময় এই বিলের বিরোধিতা করে সংসদ কক্ষে নজিরবিহীন বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন বিরোধী সাংসদরা। কক্ষে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগে সোমবার চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নাইডু আটজন বিরোধী সাংসদকে সাসপেন্ড করেন। সাংসদদের রাজ‍্যসভা থেকে বেরিয়ে যেতে বলেন তিনি। কিন্তু তা না করে সংসদ ভবনের লনে প্ল‍্যাকার্ড হাতে ধর্ণায় বসেন তাঁরা। প্ল‍্যাকার্ডে লেখা রয়েছে "আমরা কৃষকদের হয়ে লড়াই করব", "সংসদকে হত‍্যা করা হয়েছে"।

আজ সকালে রাজ‍্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যান হরিবংশ তাঁদের কাছে গিয়ে চায়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কিন্তু তাঁরা তাঁকে "কৃষক-বিরোধী" আখ‍্যা দিয়ে চায়ের নিমন্ত্রণ প্রত‍্যাখান করেন।

বিরোধীরা ডেপুটি চেয়ারম্যানকে "অগণতান্ত্রিক" বলে উল্লেখ করে তাঁর বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব এনেছিলেন, কিন্তু তা গতকাল খারিজ করে দেন বেঙ্কাইয়া নাইডু। গতকাল নজিরবিহীন ভাবে পাঁচ বারের জন্য মুলতুবি হয় রাজ্যসভার অধিবেশন। শেষে পরিস্থিতি সামাল দিতে মঙ্গলবার পর্যন্ত রাজ্যসভার অধিবেশন মুলতুবি করে দেওয়া হয়। সোমবার সকাল থেকে চারবার অধিবেশন মুলতুবি হয়ে যাওয়ার পর বেলা ১২টায় ফের অধিবেশন শুরু হলে আবারও গণ্ডগোল শুরু হয়ে যায়। এরপরই অধিবেশন মুলতুবি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন