গার্হস্থ্য হিংসার কারণে এপ্রিল থেকে জুন মাসের মধ্যে আইনি সাহায্য চেয়ে ২,৮৭৮ টি মামলা দায়ের হয়েছে। বৃহস্পতিবার সংসদে এক বিবৃতিতে এমনটাই জানিয়েছে কেন্দ্র। ন্যাশনাল লিগাল সার্ভিসেস অথরিটির (নালসা)তরফে পাওয়া তথ্য অনুসারে এই পরিসংখ্যান পাওয়া গিয়েছে বলে এক প্রশ্নের উত্তরে লিখিতভাবে এই তথ্য রাজ্যসভায় পেশ করেন মহিলা ও শিশু উন্নয়ন মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি।

তিনি জানান, এই ঘটনাগুলোর মধ্যে ৬৯৪ টি মামলা কাউন্সেলিংয়ের মাধ্যমে সমাধান করা সম্ভব হয়েছে। ২,৮৭৮ টি মামলায় সরকারি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। ইরানি আরও বলেন, লকডাউনের কারণে ওয়ান-স্টপ সেন্টার ও মহিলা হেলপলাইনগুলোতে নিজেদের নিরাপত্তা চেয়ে ফোন এসেছে। উইমেন অ্যান্ড ডোমেস্টিক ভায়োলেন্স অ্যাক্ট, ২০০৫ এবং ডাউরি প্রোহিভিটেশন অ্যাক্ট, ১৯৬১ অনুসারে কাজ করা অফিসাররা ক্রমাগত নিজেদের কাজে নিয়োজিত থেকেছেন। লকডাউনের সময় নিপীড়িত হতে থাকা মহিলাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন তাঁরা।

অন্য আরেকটি প্রশ্নের উত্তরে ইরানি বলেন, কোভিড-১৯ সংক্রমণের কারণে সমস্ত অঙ্গনওযারি কেন্দ্র বন্ধ ছিল। রাজ্যগুলোর সঙ্গে এই বিষয়ে আলোচনার পরে জানা গিয়েছে, করোনা সংক্রমণের কারণে অঙ্গনওয়ারি কেন্দ্রগুলো খোলা রাখা সম্ভব হয়নি। আর এই কারণে প্রত্যেক বাড়িতে গিয়ে মহিলাদের পুষ্টিকর খাদ্য পৌঁছে দিয়ে আসা সম্ভব হয়নি বলেও জানান স্মৃতি। তাই প্রত্যেক ১৫ দিন অন্তর অঙ্গনওয়ারি কর্মীরা বাড়িতে গিয়ে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিয়ে আসছেন কেন্দ্রের নির্দেশে। পাশাপাশি স্থানীয় প্রশাসনের সাহায্যে অঙ্গনওয়ারি কর্মীরা সচেতনতা প্রচারের কাজও করছেন বলে জানিয়েছেন স্মৃতি।


পিপলস রিপোর্টার এর সব খবর এখন Telegram-এও।
সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন এই লিঙ্কে - t.me/peoplesreporter 
সব খবর পেয়ে যান হাতের মুঠোয়, এক মুহূর্তে
গুজবে নয়, খবরে থাকুন পিপলস রিপোর্টারের সঙ্গে থাকুন


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন