শশী থারুরকে নিয়ে বিতর্কের মাঝেই সংসদীয় কমিটির সামনে হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হল ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে। আগামী ২ সেপ্টেম্বর এই হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। শশী থারুরের নেতৃত্বাধীন তথ্য প্রযুক্তি সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটিই এই বক্তব্য শুনবে বলে জানা গিয়েছে। কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুরকে এই সংসদীয় কমিটি থেকে বাদ দেওয়ার দাবির মাঝেই এই নির্দেশ দেওয়া হল ফেসবুককে।

গত শুক্রবার মার্কিন সংবাদপত্র ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানায়, ব্যবসায়িক লাভের কথা মাথায় রেখে এক বিজেপি নেতার ঘৃণা ছড়ানোর বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেয়নি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। এই রিপোর্টকে সামনে রেখে বিজেপি ও আরএসএসের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানান কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি।

তিনি বলেন, ভারতে ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপকে নিয়ন্ত্রণ করছে বিজেপি আরএসএস। তথ্যপ্রযুক্তি সংক্রান্ত সংসদীয় স্ট্যান্ডিং কমিটির প্রধান হিসাবে কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুর চেয়েছিলেন, ফেসবুকের কোনও প্রতিনিধিকে ডাকা হোক। স্ট্যান্ডিং কমিটি এবিষয়ে তাঁর বক্তব্য শুনুক। এরপরেই বিজেপি নেতা নিশিকান্ত দুবে লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লাকে চিঠি দিয়ে বলেন, শশী থারুরকে স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যানের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হোক।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাজ্যবর্ধন রাঠোর অভিযোগ করেন, শশী থারুর বিধিভঙ্গ করেছেন। নিশিকান্ত দুবে লিখেছেন,'শশী থারুর একের পর এক বিতর্ক সৃষ্টি করে চলেছেন। তিনি নিখুঁত উচ্চারণে ইংরেজি বলতে পারেন ঠিকই, কিন্তু তা বলে সংসদীয় বিধি উপেক্ষা করতে পারেন না।' নিশিকান্ত দুবে ও শশী থারুর পরস্পরের বিরুদ্ধে বিধিভঙ্গের নোটিস দিয়েছেন। এরইমধ্যে ফেসবুকের প্রতিনিধিকে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হল। যে কমিটির প্রধান কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুর স্বয়ং।


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন