ফেসবুক ইন্ডিয়ার পাবলিক পলিসি ডিরেক্টর আঁখি দাসের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হলো। ছত্তিশগড় পুলিশ গতকাল গভীর রাতে এই এফআইআর দায়ের করেছে। সিনিয়র পুলিশ সুপার অজয় যাদব সংবাদমাধ্যমে একথা জানিয়েছেন।

তিনি জানিয়েছেন, রায়পুরের এক সাংবাদিক আওয়েশ তিওয়ারির (Awesh Tiwari) অভিযোগের ভিত্তিতে রায়পুরের কবীরনগর থানায় সোমবার রাতে তিনজনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। এঁরা হলেন ফেসবুক এক্সিকিউটিভ অফিসার আঁখি দাস, ছত্তিশগড়ের মুঙ্গেলির বাসিন্দা রাম সাহু এবং মধ‍্যপ্রদেশের ইন্দোরের বাসিন্দা বিবেক সিনহা। তদন্ত চলছে। সেই ভিত্তিতে পরবর্তী ব‍্যবস্থা নেওয়া হবে।

এই তিনজনের বিরুদ্ধে ভারতীয় দন্ডবিধির ২৯৫ এ, ৫০৫(১)(সি), ৫০৬, ৫০০ ও ৩৪ নম্বর ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এফআইআর অনুযায়ী, আওয়েশ নিজের অভিযোগে জানিয়েছেন, গত ১৬ আগস্ট নিজের ফেসবুক অ‍্যাকাউন্ট থেকে মার্কিন পত্রিকা ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদন সম্পর্কিত একটি পোস্ট করেছিলেন আওয়েশ। সেই পোস্টে‌ রাম সাহু এবং বিবেক সিনহা নামের দুই ফেসবুক ইউজার আঁখি দাসের সমর্থনে কমেন্ট করেন। তাঁদের বক্তব্য আঁখি দাস হিন্দু তাই হিন্দুদের হয়ে কথা বলেছেন তিনি। বিবেক সিনহা ওই পোস্টে সাম্প্রদায়িকভাবে সংবেদনশীল বেশ‌ কিছু ছবিও পোস্ট করে এবং আওয়েশকে হুমকি দেন।

আওয়েশ আরো জানিয়েছেন, এই পোস্টের পর হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমেও হুমকি মেসেজ ও কল পেয়েছেন তিনি।

তাঁর অভিযোগ, ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়িয়ে তাঁকে বদনাম করার চেষ্টা করছেন সাহু ও সিনহা। তাঁর জীবনের ঝুঁকি রয়েছে। প্রমাণ স্বরূপ সোশ‍্যাল মিডিয়ায় পাওয়া হুমকিগুলোর স্ক্রিনশট পুলিশের কাছে জমা দিয়েছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, গত ১৪ আগস্ট ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, ফেসবুক ইন্ডিয়ার পাবলিক পলিসি ডিরেক্টর আঁখি দাস সংস্থার কর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন ভারতে ব‍্যবসা টিকিয়ে রাখতে তাঁরা যেন দেশের বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে ফেসবুকের হেট স্পিচ সংক্রান্ত নীতি প্রয়োগ না করে। হিন্দুত্ববাদী নেতা ও সংগঠনের ক্ষেত্রেও একই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এই রিপোর্ট প্রকাশিত হবার পর থেকে উত্তাল জাতীয় রাজনীতি।


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন