গতবছর ৫ আগস্ট জম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বাতিল করে রাজ‍্যকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে পথে নেমেছিলেন রাজ‍্যবাসী। সেই ক্ষোভ এখনও প্রশমিত হয়নি। তাই এই ঘটনার এক বছর পূর্তিতে ব‍্যাপক আন্দোলনের আশঙ্কা করে উপত‍্যকা জুড়ে ফের কারফিউ জারি করলো প্রশাসন। ৪ ও ৫ আগস্ট অর্থাৎ আজ ও আগামীকাল জম্মু-কাশ্মীরে কারফিউ জারি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। পাশাপাশি গত ৩১ জুলাই থেকে আগামী ৫ আগস্ট পর্যন্ত কোভিড-১৯ সংক্রান্ত যে বিধিনিষেধ জারি করা ছিল, তারও সময়সীমা বাড়িয়ে ৮ আগস্ট পর্যন্ত করা হয়েছে।

প্রশাসনিক কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বিচ্ছিন্নতাবাদী ও পাকিস্তানী মদতপুষ্ট কিছু গোষ্ঠী ৫ আগস্ট দিনটিকে কালা দিবস হিসেবে পালন করার পরিকল্পনা নিয়েছে। যা রাজ‍্যে বিক্ষোভের সম্ভাবনা আরো বাড়িয়ে দিচ্ছে।

এসএসপি শ্রীনগরের একটি রিপোর্ট উদ্ধৃত করে শ্রীনগরের জেলাশাসক শহীদ চৌধুরী এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, "জনজীবন ও জনগণের সম্পত্তি বিপন্ন‌ করার জন্য সহিংস বিক্ষোভ হতে পারে বলে নির্দিষ্ট খবর রয়েছে আমাদের কাছে।" জনগনের চলাচলের ওপর সম্পূর্ণ নিষেধাজ্ঞা জারি ও কারফিউ জারির নির্দেশ দিয়ে বিবৃতিতে তিনি আরও বলেছেন, "রিপোর্টে বলা হয়েছে জনগণের সম্পত্তির ক্ষয়ক্ষতি রোধে এবং এই ধরনের সহিংসতা প্রতিরোধে জেলায় কারফিউ জারি করা জরুরি।"

কারফিউ চলাকালীন সরকারি যান চলাচল, ব‍্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠান, দোকান-বাজার সমস্ত কিছু বন্ধ থাকবে। জনগণের চলাচল কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে এবং রাস্তায় প্রচুর পরিমাণে নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন থাকবে।


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন