ফের এক নৃশংস গণপিটুনির সাক্ষী থাকলো গোটা দেশ। গোমাংস পাচারের অভিযোগে পুলিশের সামনেই এক নিরস্ত্র যুবককে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত করে তুললো একদল উন্মত্ত জনতা। সোশ‍্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল ভয়াবহ এই ঘটনার দৃশ্য দেশের আইন-শৃঙ্খলার চূড়ান্ত অবক্ষয়কে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে বলে মনে করছেন দেশবাসীর একাংশ।

গতকাল সকাল ৯টা নাগাদ হরিয়ানার গুরগাঁওয়ের আইটি হাবের কাছে একটি পিক-আপ ভ‍্যান দেখতে পান স্থানীয় কিছু জনতা। তাতে গোমাংস নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলে সন্দেহ করেন তারা। এরপর প্রায় ৮ কিলোমিটার তাড়া করে ভ‍্যানটিকে আটকায় স্বঘোষিত কিছু গোরক্ষক। গাড়ির চালককে টেনেহিঁচড়ে গাড়ি থেকে নামিয়ে বেধড়ক মারতে থাকে তারা, যা ২০১৫ সালে দাদরি মব লিঞ্চিংয়ের কথা মনে করিয়ে দেয়। দাদরির ঘটনার মতোই এখানেও পুলিশ ঘটনাস্থল পৌঁছে নির্যাতিতকে উদ্ধার না করে মাংস পরীক্ষার জন্য ল‍্যাবে পাঠানোর ব‍্যবস্থা করে আগে।

বেশ কিছুক্ষণ ধরে মেরে মেরে লোকমান নামের ওই গাড়ির চালককে রক্তাক্ত অবস্থায় পিক-আপ ভ‍্যানে তুলে বাদশাহপুর গ্রামে পাঠানো হয়। সেখানে ফের তাকে মারতে শুরু করেন গোরক্ষকরা। এতোক্ষণ পরে পুলিশ বিষয়টিতে হস্তক্ষেপ করে। আক্রমণকারীদের থামিয়ে লোকমানকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ। এই ঘটনায় "অজ্ঞাতপরিচয়" ব‍্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। যদিও ঘটনাস্থল থেকে তোলা একাধিক ভিডিওতে আক্রমণকারীদের মুখ পরিষ্কার দেখা গিয়েছে, তা সত্ত্বেও এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করেনি পুলিশ।

গাড়ির মালিক জানিয়েছেন গাড়িতে মহিষের মাংস ছিল এবং দীর্ঘ ৫০ বছর ধরে এই ব‍্যবসা করছেন তিনি।


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন