সরকার নিয়ন্ত্রিত ব্যাঙ্কগুলোকে আরও পেশাদারী পদ্ধতিতে চালানোর জন্য সরকারী অংশীদারিত্বের পরিমাণ ২৬ শতাংশে নামিয়ে আনা হোক বলে জানিয়েছে রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া। ব্যাঙ্কের মালিকদের দীর্ঘমেয়াদী ব্যবস্থা করতে হবে বলেও জানিয়েছে আরবিআই। এই আর্থিক সংস্থাগুলো আরও পেশাদার ভঙ্গিতে কাজ করুক তা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে প্রস্তাবটি পেশ করা হয়েছে। বর্তমানে সরকারি খাতের ব্যাঙ্কগুলোতে কেন্দ্রের অংশীদারিত্ব ৫০ শতাংশের বেশি।

করোনা মহামারী পরিস্থিতিতে বুধবার শীর্ষ ব্যাঙ্কারদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। বৈঠকে তিনি বলেন, যাঁরা ব্যাঙ্ক থেকে ঋণ নিয়েছিলেন বিভিন্ন পর্যায়ে, তা যেন এমন পরিস্থিতিতে মিটিয়ে দেওয়া হয়। বৃহস্পতিবার ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন, আর বি আই প্রধান শক্তিকান্ত দাস, সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ বোর্ড অফ ইন্ডিয়া (সেবি), অজয় ত্যাগী, ইন্স্যুরেন্স রেগুলেটরি অ্যান্ড অথরিটি অফ ইন্ডিয়া (ইরদা), এসিস খুন্তিয়া প্রমুখ। এক ঘণ্টা ধরে চলা এই বৈঠকে প্রতিটি ব্যাঙ্ক নিয়ন্ত্রক বর্তমান পরিস্থিতি এবং মহামারী চলাকালীন গৃহীত কর্মসূচির মূল্যায়ন তুলে ধরে।

কেন্দ্র অবশ্য জানিয়েছে যে পিএসইউ ব্যাঙ্কের ন্যূনতম ৫২ শতাংশের অংশীদারিত্ব থাকবে। উল্লেখ্য, রাষ্ট্র পরিচালিত ব্যাঙ্কগুলোর পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের মেয়াদ তিন বা পাঁচ বছর হতে হবে এবং পারিশ্রমিক বেসরকারি খাতের ব্যাঙ্কের অংশ হতে হবে বলে সুপারিশ করা হয়েছে।

করোনা আবহের কারণে চলতি আর্থিক বছরে ঋণগ্রহণের মাত্রা বাজেটে ৭.৬ লাখ কোটি থেকে বাড়িয়ে ১২ লাখ পর্যন্ত করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর তহবিল বাড়াতে জনসাধারণের সম্পদের নগদীকরণের পরামর্শাও দেওয়া হয়েছে।


জনপ্রিয় খবর

  • এই সপ্তাহের এর

  • এই মাস এর

  • সর্বকালীন